চিন সীমান্তে শক্তিবৃদ্ধি ভারতের, উৎসাহ জোগালেন তিব্বতীরা

1219

সিমলা: বরফ গলনের কোনও চিহ্ন নেই, তাই শক্তিবৃদ্ধির পথই বেছে নিল ভারত। হিমাচল প্রদেশের লাহুল-স্পিতি ও কিন্নরে ভারত চিন সীমান্তে মোতায়েন করা হচ্ছে বাড়তি নিরাপত্তা বাহিনী। আর এদিন রাস্তার দু’পাশে দাঁড়িয়ে ভারতীয় জওয়ানদের উৎসাহ দিলেন স্থানীয় তিব্বতী বাসিন্দারা।

লাদাখে চিনা আগ্রাসনের জেরে ভারত-চিন সম্পর্ক এখন তলানিতে এসে ঠেকেছে। দু’দেশের আলোচনার ফাঁকেই ফের আগ্রাসনের চেষ্টা চালাচ্ছে চিন। সম্প্রতি দু’দেশের মধ্যে শান্তির পক্ষে সওয়ালও করেন ভারতীয় সেনার জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নরবণে।

- Advertisement -

অপরদিকে পরিস্থিতি গভীরতা বুঝে, সীমান্তে বাড়তি পাহারা বাড়াতে স্পেশাল টিবেটান ফ্রন্টিয়ার ফোর্সের আরও জওয়ানকে পাঠাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই ফোর্সের একটা বড় অংশ তৈরি হয়েছে তিব্বতী শরণার্থীদের নিয়ে। তিব্বত থেকে ভারতে আশ্রয় নেওয়া উদ্বাস্তু তিব্বতীদের অনেকে থাকেন হিমাচল প্রদেশের পান্থাঘাটি এলাকায়। সিমলার জাতীয় সড়কের দু’পাশে দাঁড়িয়ে এসটিএফএফ জওয়ানদের উৎসাহ দিলেন তাঁরা। পাশাপাশি জওয়ানদের সৌভাগ্য কামনা করে তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয় খাদা।

উল্লেখ্য, এসটিএফএফ-এর এই জওয়ানরা এতদিন ছিলেন সুগার সেক্টরে। এবার তাঁদের হিমাচলের বিভিন্ন সীমান্ত এলাকায় পাঠানো হবে বলে সেনা সূত্রে খবর।