ফালাকাটায় মিমের আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না তৃণমূলের

303

ফালাকাটা: ফালাকাটায় বিজেপির শক্তি বেড়ে যাওয়ায় এমনিতেই যথেষ্ট চাপে রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। এবার বিজেপির পাশাপাশি এআইএমআইএম (মিম) কে রুখতে তৃণমূলকে পালটা কৌশল নিতে হচ্ছে। কারণ, মুসলিম ভোট তৃণমূলের জেতার ক্ষেত্রে অন্যতম ভরসা। কিন্তু বিহারের বিধানসভা নির্বাচনে সাফল্য পাওয়ায় এখন এ রাজ্যের দিকেও নজর দিয়েছে মিম। মঙ্গলবার জলপাইগুড়ির কর্মীসভাতেও দলনেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় নাম না করে মিমের সঙ্গে বিজেপির সম্পর্ককে কটাক্ষ করেছেন। এক্ষেত্রে আগেভাগেই সতর্কভাবে ফালাকাটায় ময়দানে নেমেছে তৃণমূল। এজন্য দলের সংখ্যালঘু নেতাদেরকেই কাজে লাগানো হচ্ছে। এদিন মিমের আশঙ্কার কারণেই ফালাকাটা শহরের দুলাল দোকান এলাকায় মুসলিম ভোটারদের নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক করে তৃণমূল। সংখ্যালঘু ভোটাররা যাতে মিমের ফাঁদে পা না দেয় সেজন্য সবাইকে সচেতন করা হচ্ছে বলে তৃণমূলের নেতারা জানিয়েছেন।

ফালাকাটা বিধানসভা কেন্দ্রে প্রায় ১৯ শতাংশ সংখ্যালঘু ভোট রয়েছে। ফালাকাটা শহরের দুলাল দোকান এলাকায় ২৪১ নম্বর বুথে প্রায় ৯০ শতাংশ ভোটার সংখ্যালঘু। আশপাশের বুথগুলিতেও কম বেশি সংখ্যালঘু ভোট রয়েছে। তাই এই বুথগুলিতে তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠনও মজবুত। কিন্তু তা সত্ত্বেও মিমের আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না তৃণমূলের। তাই এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সম্পাদক স্থানীয় গোফুর আহমেদ, অঞ্চলের নেতা জমিরুদ্দিন সরকার, আজিদ মিয়াঁ, সংখ্যালঘু সেলের ব্লক নেতা তইবর মিয়াঁ, সামসের আলি মিয়াঁ, মনসুর আলি প্রমুখরা দুলাল দোকান এলাকায় কয়েক দফায় বৈঠক করেন। দলীয় কার্যালয়ের পাশাপাশি এলাকার পাড়াতেও বাসিন্দাদের সঙ্গে তাঁদের বৈঠক হয়। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে মিমকে রুখতেই এই বৈঠক বলে জানা গিয়েছে। এভাবেই সাধারণ মুসলিম ভোটারদের সচেতন করার কাজ শুরু করেছেন তৃণমূল। দুলাল দোকান এলাকা সহ এই ব্লকের ধনীরামপুর, দেওগাঁও, জটেশ্বর, ছোট শালকুমার, পূর্ব কাঁঠালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় সংখ্যালঘু মুসলিম ভোট রয়েছে।

- Advertisement -

দলীয় সূত্রে খবর, এইসব অঞ্চলগুলিতেও মুসলিম ভোটারদের সচেতন করতে ধাপে ধাপে তৃণমূলের বৈঠক হবে। কারণ, ২০১১ সাল থেকে ফালাকাটায় সংখ্যাগরিষ্ট সংখ্যালঘু মুসলিম ভোট তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গেই রয়েছে। কিন্তু বিহারের নির্বাচনে মিমের সাফল্যের পর তৃণমূলের উদ্বেগ বেড়েছে। এজন্য গত ৬ ডিসেম্বর তড়িঘড়ি ফালাকাটায় তৃণমূল কংগ্রেসের সংখ্যালঘু সেলের পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি ঘোষনা করা হয়। এখন সংখ্যালঘু সেলের নেতাদের ময়দানে নামানো হয়েছে। এদিন বৈঠকের পর তৃণমূলের জেলা সম্পাদক ফালাকাটার গোফুর আহমেদ বলেন, ‘সংখ্যালঘু মুসলিম ভোটাররা যাতে মিমের মত উগ্রবাদী সংগঠনের ফাঁদে পা না দেয়, সেই আহ্বান জানানো হয়েছে।তাঁর দাবি, ফালাকাটার সংখ্যালঘু ভোট তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গেই রয়েছে। মিমের আতঙ্কের কথা উড়িয়ে তিনি জানান, ফালাকাটা তথা আলিপুরদুয়ার জেলায় এখনও মিমের কোনও প্রভাব নেই। এজন্য মিমকে নিয়ে আতঙ্কের কিছু নেই। তবে আগে থেকেই সবাইকে সতর্ক করতে ধাপে ধাপে অঞ্চল স্তরে বৈঠকগুলি করা হবে।