দিনহাটা,২৮ জুন :তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল দিনহাটা থানার পেটলা এলাকা।  বৃহস্পতিবার রাতের এই ঘটনায় বিজেপি পার্টি অফিসের পাশাপাশি পুলিশের একটি গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়।  দুষ্কৃতীদের হামলায় কয়েকজন  পুলিশকর্মী সামান্য জখম হন।  বিজেপির অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা পেটলায় তাণ্ডব চালিয়েছে।  অপরদিকে তৃণমূলের অভিযোগ, গো-রক্ষক বাহিনীর নামে বিজেপির আশ্রিত কয়েকজন দুষ্কৃতী এলাকায় অশান্তি করেছে।  তৃণমূলের এক পঞ্চায়েত সদস্যকে অপহরণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দিনহাটা পেটলায় গো-রক্ষক বাহিনীর কয়েকজন যুবক  গোরু বোঝাই একটি পিকআপ ভ্যান আটক করে।   গোরুর মালিকের কাছে সেই গরুর বৈধ কাগজ দেখতে চায়।  এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বচসা শুরু হয় দু’পক্ষের মধ্যে। এরপর গোরু মালিকদের কয়েকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসে এবং তাদের সঙ্গে গো-রক্ষক বাহিনী ঝামেলা বাধে।  অভিযোগ, তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্যের নেতৃত্বে এক যুবককে মারধর করা হয়ে সেই সময়।  এই ঘটনা জানাজানি হতেই গো-রক্ষক বাহিনীর সদস্যরা ওই পঞ্চায়েত সদস্যকে তুলে নিয়ে আসে।  এতেই উত্তেজনা ছড়ায়।  তৃণমূল গিয়ে এলাকার বিজেপি পার্টি অফিসে ভাঙচুর চালায়। শুরু হয় দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ। খবর পেয়ে দিনহাটা থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের ওপর হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়।  বিজেপির নেতা সুদেব কর্মকার বলেন, ‘তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতী বিজেপির পার্টি অফিস ভাঙচুর করেছে।’   অপরদিকে তৃনমুল এর  দিনহাটা -১ ব্লক সভাপতি নুর আলম হোসেন বলেন, ‘গো-রক্ষক বাহিনীর নামে কয়েকজন গন্ডগোল করেছে।’ দিনহাটা থানার পুলিশ জানিয়েছে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

ছবি- পেটলায় বিজেপি পার্টি অফিসে ভাঙচুর।