তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত সাঁইথিয়া, ধৃত ৪ বিজেপি কর্মী

159

বোলপুর: তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে বৃহস্পতিবার উত্তপ্ত হয়ে উঠল বীরভূমের সাঁইথিয়া ব্লকের সাংড়া গ্রাম। তৃণমূল কার্যালয়ে ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে বিজেপির বিরুদ্ধে। এমনকি, কার্যালয়ের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা টোটো, ভ্যান, বাইক ভেঙে দেওয়া হয়। দু’পক্ষের কর্মীরা হাতে বাঁশ নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। জানা গিয়েছে, সংঘর্ষে তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি সাধন মণ্ডল জখম হয়েছেন। তাঁকে বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। বিজেপির চার কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এলাকায় প্রচুর পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এদিন বিজেপির লাভপুর বিধানসভার প্রার্থী বিশ্বজিৎ মণ্ডলের সমর্থনে আহমেদপুরে সাংড়া গ্রামে মিছিল করছিলেন কর্মী-সমর্থকেরা। সেই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার পথে রয়েছে তৃণমূলের কার্যালয়। বিজেপির মিছিল যাওয়ার সময় তৃণমূল ও বিজেপি দু’পক্ষের কর্মীদের মধ্যে বচসা শুরু হয়। এরপরই তা সংঘর্ষের রূপ নেয়। অভিযোগ, বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা তৃণমূল কার্যালয়ে ভাঙচুর চালান। এমনকি, রাস্তার দাঁড়িয়ে থাকা বেশ কয়েকটি টোটো, সাইকেল, ভ্যান, বাইক ভাঙচুর করা হয়। পালটা বাঁশ-লাঠি হাতে প্রতিরোধ করে তৃণমূল। দু’পক্ষের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। তৃণমূলের সাঁইথিয়া ব্লক সভাপতি ঝোকন সাধু জানান, তাঁরা সাংড়া অঞ্চলের ১২ জন বুথ সভাপতিকে নিয়ে বৈঠক করছিলেন। সেই সময় আচমকা দলীয় কার্যালয়ে আক্রমণ চালায় বিজেপি। অঞ্চল সভাপতি সাধন মণ্ডলের মাথায় আঘাত লাগে। প্রতিবাদ করা হলে তাঁরা পালিয়ে যান।

- Advertisement -

লাভপুরের বিজেপি প্রার্থী বিশ্বজিৎ মণ্ডল জানান, তাঁদের কিছু কর্মী সাংড়া গ্রামের পাঁশে নানুবাজারে পতাকা টাঙাচ্ছিলেন। সেইসময় তৃণমূলের লোকজন তাঁদের কর্মীদের মারধর করে পার্টি অফিসে নিয়ে যায়। পড়ে বিজেপির লোকজন তাঁদের উদ্ধার করতে গেলে পুলিশ উলটে তাঁদের চারজনকে ধরে নিয়ে যায়। তৃণমূল পরিকল্পিতভাবে বিজেপির উপর হামলা চালাচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এদিন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় আহমেদপুর ফাঁড়ির পুলিশ। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সাঁইথিয়া, বোলপুর থেকে বিশাল পুলিশবাহিনী, কমব্যাট ফোর্স সেখানে পৌঁছায়। ঘটনার তদন্ত চলছে।