শালকুমারহাট, ৬ মেঃ রবিবার রাতে তৃণমূল ও বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল আলিপুরদুয়ারের পলাশবাড়িতে। ঘটনায় জখম হয়েছেন অপুরঞ্জন দে নামে এক ব্যক্তি। জানা গিয়েছে, তিনি তৃণমূল সমর্থক। আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে।

তৃণমূলের অভিযোগ, ১১ এপ্রিল ভোটের দিন আলিপুরদুয়ার ১ নম্বর ব্লকের পূর্ব কাঠালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের পলাশবাড়ির কলোনিপাড়ায় ১৩/৬২ বুথে তৃণমূল ও বিজেপির সমর্থকদের মধ্যে বচসা হয়। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রবিবার রাতে বিজেপি সমর্থক জয় বিশ্বাস নামে ওই ব্যক্তি তাঁদের ওই কর্মীর ওপর চড়াও হন। এলাকায় সন্ত্রাসের আবহ তৈরি করতে বিজেপি আশ্রীত দুষ্কৃতীরা তাঁদের ওই কর্মীকে আক্রমণ করে বলে অভিযোগ। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকাল রাতে অপুরঞ্জন দে ফালাকাটা-সোনাপুর জাতীয় সড়কের পলাশবাড়ি বাস স্টপেজের পাশে একটি ক্লাবের মাঠে বন্ধুদের সঙ্গে ছিলেন। ঝড়ের কারণে বিদ্যুৎ না থাকায় অন্ধকার জায়গায় হঠাৎ করে জয় বিশ্বাস তাঁর উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। তৃণমূলের ১৩/৬২ বুথ সভাপতি প্রফুল্ল বর্মন বলেন, ‘আমাদের ওই কর্মীকে বিজেপির জয় বিশ্বাস লোহার রড দিয়ে মারধর করে। তাঁর বাম চোখে ও মাথায় চোট লেগেছে।’ জখম অবস্থায় অপুরঞ্জন দে কে হাসপাতালে ভরতি করা হয়। এদিকে হামলা চালিয়েই এলাকা থেকে জয় বিশ্বাস পালিয়ে যান বলে অভিযোগ। রাতেই তৃণমূলের পক্ষ থেকে সোনাপুর পুলিশ ফাড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। যদিও এই বিষয়ে বিজেপির তরফে জানানো হয়েছে, ব্যক্তিগত ঝামেলার কারণে এই ঘটনাটি ঘটে। তৃণমূল ভিত্তিহীনভাবে এখানে রাজনৈতিক রং লাগাচ্ছে। সোনাপুর পুলিশ ফাঁড়ির ওসি মিংমা শেরপা জানান, ‘লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।’

তথ্যঃ শান্ত বর্মন

ছবিঃ সুভাষ বর্মন