ভোট প্রচারের জন্য দেওয়াল দখল ঘিরে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ

273

বর্ধমান: ২০২১-এ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। ভোট যত এগিয়ে আসছে রাজনৈতিক উত্তাপ ততই বাড়ছে। বিভিন্ন জেলায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছেন তৃণমূল-বিজেপি কর্মীরা। ভোটের প্রচারের জন্য দেওয়াল দখলকে কেন্দ্র করে শুক্রবার রাতেও পূর্ব বর্ধমানের রায়ানের খাঁ পুকুর পূর্বপাড়ায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ হয়। এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। ঘটনায় দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হন। দুই পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে বর্ধমান থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

রায়ান খাঁ পুকুর এলাকার বিজেপির বুথ কমিটির সভাপতি সুরজিৎ হাজরা চৌধুরীর অভিযোগ, শুক্রবার রাতে তাঁরা কয়েকজন বসেছিলেন। তখন হঠাৎ করেই এলাকার তৃণমূল নেতা দীপক দের নেতৃত্বে একদল তৃণমূল কর্মী-সমর্থক তাঁদের উপর হামলা চালান। তাঁরা কোনওরকমে পালিয়ে প্রাণে বাঁচেন। বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক শ্যামল রায়ের অভিযোগ, তৃণমূল কর্মীদের মারে তাঁদের বুথ সভাপতি সহ তিনজন কর্মী আহত হয়েছেন। তৃণমূল পরিকল্পিতভাবে এই হামলা চালিয়েছে।

- Advertisement -

যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে রায়ান ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান রিনু দে জানান, বাড়ির মালিকের অনুমতি নিয়ে এলাকার তৃণমূল কর্মীরা ভোটের প্রচারের জন্য দেওয়ালে সাদা রং করেছিলেন। ওয়াল ফর টিএমসি বলেও দেওয়ালে লেখা হয়েছিল। কিন্তু টিএমসি লেখা মুছে দিয়ে বিজেপি কর্মীরা ওই দেওয়ালে বিজেপি লিখে দিচ্ছিলেন। তা দেখে তৃণমূল কর্মীরা বাধা দিলে বিজেপি কর্মীরা তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের উপর হামলা চালান। তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়ও ভাঙচুরও চালানো হয়। মারধরে কয়েকজন তৃণমূল কর্মী আহত হয়েছেন।

তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য মুখপাত্র দেবু টুডু এদিন বলেন, ‘বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারের জন্য তৃণমূল কর্মীরা রায়ানের বেশ কয়েকটি দেওয়ালে সাদা রং করেছিলেন। বিজেপি কর্মীরা রাতের অন্ধকারে ওইসব দেওয়ালে লেখা তৃণমূল কথাটি মুছে দিয়ে বিজেপি লিখে দেন। তাঁর প্রতিবাদ করলে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলা চালান, মারধরও করেন।’