সীমান্তগ্রামে ভোট প্রচারে সাড়া পেলেন না হেমতাবাদের তৃণমূল প্রার্থী

188

হেমতাবাদ: বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী টিটিহী গ্রামে প্রচারে নেমেও সেভাবে সাড়া পেলেন না হেমতাবাদের তৃণমূলের প্রার্থী সত্যজিৎ বর্মন। শনিবার টিটিহী গ্রামে তৃণমূলের সভায় কর্মীসংখ্যা ছিল সামান্য। একের পর এক দলীয় নেতারা বক্তব্য রাখলেও, তৃণমূলের প্রার্থী সত্যজিৎ বর্মন এক মিনিটের মধ্যেই ভাষণ শেষ করে দেন। বিভিন্ন জায়গায় সভা করলেও কর্মী-সমর্থক থেকে শুরু করে আম জনতার ভিড় নেই বললেই চলে। যদিও ভোটারদের মন জয় করতে হেমতাবাদ গ্রামীণ হাসপাতালকে স্টেট জেনারেল হাসপাতালে রূপান্তরিত করা, হেমতাবাদের রাজ্য সড়কের দুই ধারে হাইড্রেন করা, সীমান্তবর্তী গ্রামে প্রতিটি পঞ্চায়েত এলাকায় স্বাস্থ্যকেন্দ্র গড়ে তোলার কথা জানিয়েছেন তিনি।

তবে দলীয় সূত্রে খবর, প্রার্থী ঘোষণার পর থেকে উত্তর দিনাজপুর জেলার হেমতাবাদ বিধানসভা এলাকায় একের পর এক নেতার অভিমান ভাঙাতে শুরু হয়েছে অন্য লড়াই। হেমতাবাদ বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী নিয়ে কোন্দল থামছে না কিছুতেই। প্রার্থী বদলের দাবিতে সোচ্চার তৃণমূলের একাংশ। বিক্ষুব্ধরা এদিন হেমতাবাদ বিধানসভা এলাকার রামপুর লহণ্ডা, মহারাজা হাট ও বিন্দোল এলাকায় তৃণমূল নেতাদের বাড়িতে বৈঠক করেন। তাঁদের সাফ কথা, সত্যজিৎ বর্মনকে প্রার্থী হিসেবে মানা হবে না। যদিও ওই বৈঠক নিয়ে দলের প্রার্থী সম্পূর্ণ অন্ধকারে।

- Advertisement -

হেমতাবাদের তৃণমূলের প্রার্থী সত্যজিৎ বর্মন বলেন, ‘কারা এই বৈঠক করেছে কিছুই জানিনা।’ হেমতাবাদের ব্লক সভাপতি শেখর রায় জানান, এখানে কোনও গোষ্ঠী কোন্দল নেই। যদি কেউ দল বিরোধী কাজ করে থাকে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিন্দোল গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন উপপ্রধান তথা তৃণমূলের জেলা কমিটির সদস্য পশিরুদ্দিন আহমেদ জানান, তৃণমূল প্রার্থী তাঁদের সঙ্গে কোনও আলোচনা করেননি। তৃণমূলের যে সমস্ত নেতাদের নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তাঁদের কোনও মতেই মেনে নেওয়া যায় না।

সম্প্রতি হেমতাবাদ বিধানসভার একাধিক এলাকায় সত্যজিৎ বর্মনকে প্রার্থী করায় রাস্তা অবরোধ থেকে শুরু করে বিক্ষোভও হয়েছে।