তুফানগঞ্জ, ১৩ জুনঃ তুফানগঞ্জ পুরসভার ১২ নং ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলার ইন্দ্রজিৎ ধরের বাড়িতে ভাঙচুরের অভিযোগ উঠল বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ১২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার ইন্দ্রজিৎ ধর বলেন, বৃহস্পতিবার তৃণমূলের রাজ্য নেতাদের সঙ্গে স্লোগান দেওয়ায় রাজ্য নেতারা তুফানগঞ্জ ছেড়ে চলে যাওয়ার পরই বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁর বাড়িতে ভাঙচুর ও হামলা চালায় বলে অভিযোগ। তৃণমূল করার জন্যই বারবার তাঁর বাড়িতে হামলা চালানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ ইন্দ্রজিৎবাবুর। বিজেপি নেতারা অবশ্য ইন্দ্রজিৎ বাবুর আনা এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছে। ঘটনার তদন্ত করছে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ।

প্রসঙ্গত, এদিন তৃণমূলের প্রতিনিধি দলকে দুই দফায় কালো পতাকা দেখিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে যুব মোর্চা ও বিজেপির কর্মীরা। এদিন সকালে প্রথম ঘটনাটি ঘটে তুফানগঞ্জে। তৃণমূলের প্রতিনিধি দলের হাওড়ার সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়নগর সাংসদ প্রতিমা মন্ডল, কলকাতা (দক্ষিণ) সাংসদ মালা রায়, তৃণমূলের কোচবিহার জেলা সভাপতি বিনয় কৃষ্ণ বর্মন, কার্যকারী সভাপতি তথা কোচবিহারের প্রাক্তন সাংসদ পার্থপ্রতিম রায়, উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, কোচবিহার( দক্ষিণ) মিহির গোস্বামী ছিলেন। তৃণমূলের কার্যালয়ের পাশেই বিজেপির কার্যালয় রয়েছে। এদিন সকালে যখন তৃণমূলের ওই প্রতিনিধি দলটি দলীয় কর্মীদের নিয়ে আলোচনা করতে আসেন, সেই সময় যুব মোর্চা ও বিজেপি কর্মীরা কালো পতাকা দেখিয়ে, গো ব্যাক স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। এদিন সকাল থেকেই তৃণমূলের ওই প্রতিনিধি দলটি আসবে শুনে, তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ের সামনে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশবাহিনী ও র‍্যাফ মোতায়েন করা হয়েছে। ফলে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ওই প্রতিনিধিদলটি তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে বর্তমান দলের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। ঘরছাড়া তৃণমূলীদের ফেরাতে কি কি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে সে বিষয়ে আলোচনা হয় বলে তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে। আলোচনা শেষে, সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরাও স্লোগান দেন। স্লোগান দেওয়ার জন্যই ইন্দ্রজিৎবাবুর বাড়িতে ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ। এরপর ওই প্রতিনিধি দলটি বক্সিরহাটের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। সেখানেও বিজেপি কর্মীরা কালো পতাকা দেখিয়ে তৃণমূলের ওই প্রতিনিধি দলটিকে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। তৃণমূলের ওই প্রতিনিধি দলটি কোচবিহারের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। বিজেপির তুফানগঞ্জ শহর মণ্ডল কমিটির সভাপতি অরুণ কুমার সরকার বলেন, আমাদের দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ যখন তুফানগঞ্জের দলীয় কার্যালয়ে এসেছিলেন, সেই সময় তৃণমূলীরা দিলীপ ঘোষকে উদ্দেশ্য করে পাথর দিয়ে ঢিল মারে। এর ফলে উত্তেজিত যুব মোর্চা ও বিজেপি কর্মীরা এদিন বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।