তৃণমূলের গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যকে খুনের অভিযোগ

337

মুর্শিদাবাদ: পুরানো শত্রুতার জেরে তৃণমূলের এক গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যকে খুনের অভিযোগ উঠল কয়েকজন দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে। বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটে মুর্শিদাবাদের কান্দি থানার আন্তরগত জিবন্তী হল্ট এলাকায়। মৃত তৃণমূল গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যর নাম রাজা শেখ (৩৬)। তিনি মহলন্দি-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের নির্বাচিত সদস্য ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে খবর, গতকাল রাতে রাজা শেখকে কয়েকজন ফোন করে জিবন্তী হল স্টেশন এলাকায় যাওয়ার জন্য ডাকেন। রাজা সেখানে পৌঁছোলে দুষ্কৃতীরা তাকে লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়ে। বোমার আঘাতে রাজা পড়ে গেলে তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। তাঁর মৃত্যু সুনিশ্চিত করতে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকেন দুষ্কৃতীরা। মৃত তৃণমূল নেতার স্ত্রী নাজমা বিবি বলেন, ‘কয়েকদিন আগে ইমানুল, রাজীব এবং আরও কয়েকজনকে নিয়ে আমার স্বামী এলাকায় একটি সালিশি সভায় অংশগ্রহণ করেছিলেন। আমার ধারণা সেই সালিশি সভার মীমাংসা ইমানুল ও রাজীবের পছন্দ হয়নি। তাই গতকাল রাতে তাঁরা আমার স্বামীকে ডেকে নিয়ে খুন করেছে।’ মৃতের মা হাজেরা বেওয়া বলেন, ‘আমার ছেলে এলাকাতে খুব জনপ্রিয় হওয়ার জন্য এলাকার লোকজন প্রায়শই আমার ছেলেকে বিভিন্ন সালিশি সভায় ডাকত। আমার ধারণা ইমানুল ও রাজীবের আমার ছেলের মীমাংসা পছন্দ হয়নি তাই তাঁরা খুন করেছে।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, গতকাল রাতে ইমানুল ও রাজীব ফোন করে রাজাকে জিবন্তী হল্ট এলাকায় ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে হঠাৎই ইমানুল ও রাজীবের সঙ্গে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। তিনি জানান, ইমানুল ও তার সঙ্গীরা রাজাকে কোপাতে শুরু করে এবং তারপরে গুলি করে খুন করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান কান্দির এসডিপিও কুমার সানি রাজ এবং কান্দি থানার আইসি। তাঁরা ঘটনাস্থল থেকে তিনটি বাইক উদ্ধার করেন। মুর্শিদাবাদ জেলা পুলিশের এক আধিকারিক জানান, জিবন্তী হল্ট স্টেশনের কাছে পঞ্চায়েত সদস্যকে খুনের ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। যদিও এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

- Advertisement -

কান্দি ব্লক তৃণমূল সভাপতি পার্থপ্রতিম সরকার জানান, রাজনৈতিক কারণে কংগ্রেস আশ্রীত দুষ্কৃতীরা পঞ্চায়েত সদস্য রাজা শেখকে বোমা ও গুলি করে খুন করেছে। পুলিশের কাছে দোষীদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের দাবি জানানো হয়েছে। যদিও জেলা কংগ্রেস মুখপাত্র জয়ন্ত দাস বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে কংগ্রেসের কোনও যোগ নেই।