অনুব্রত মণ্ডলকে প্রাণনাশের হুমকি, গ্রেপ্তার প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলার

659

বর্ধমান: বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা দলের পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের পর্যবেক্ষক অনুব্রত মণ্ডলকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হলেন আউশগ্রামের গুসকরা পুরসভার প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলার নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়। অনুব্রতর এক অনুগামীর দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার গুসকরা স্কুল মোড় এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে গুসকরা ফাঁড়ির পুলিশ। পুলিশ এদিনই নিত্যানন্দবাবুকে বর্ধমান আদালতে পেশ করে। সিজেএম ধৃতকে বিচার বিভাগীয় হেপাজতে পাঠিয়ে ২৫ সেপ্টেম্বর ফের তাঁকে আদালতে পেশ করার নির্দেশ দিয়েছেন।

গ্রেপ্তারের পর সংবাদমাধ্যমকে নিত্যানন্দবাবু জানিয়েছেন, অনুব্রত মণ্ডলের স্ত্রী যখন অসুস্থ ছিলেন তখন অনুব্রতবাবু তাঁর কাছ থেকে ২০ লক্ষ টাকা ঋণ চেয়েছিলেন। অনুব্রতবাবু একাধিকবার তাঁকে ফোন করে সেই টাকা কাছে চেয়েছিলেন। তিনি সেই টাকা অনুব্রতবাবুকে দিয়েছিলেন। টাকা নেওয়ার সময় অনুব্রতবাবু বলেছিলেন, ৩-৪ মাসের মধ্যে তিনি সেই টাকা শোধ করে দেবেন। কিন্তু এখন টাকা ফেরত দেওয়ার কথা অনুব্রতবাবু অস্বীকার করছেন। অনুব্রতবাবু বলছেন, ‘টাকা নিয়েছি তার কি প্রমাণ আছে।’ নিত্যানন্দবাবু বলেন, ‘সেই কারণে টেলিফোনে কেষ্ট মণ্ডলকে হুমকি দিয়ে বলেছিলাম, টাকা না দিলে তোকে গুলি করে মেরে দেব। তার জন্য আজ পুলিশ আমায় গ্রেপ্তার করেছে।’

- Advertisement -

আদালতে প্রবেশের পথে নিত্যানন্দবাবু বলেন, ‘অনুব্রত মণ্ডল একটা ডাকাত। ২০০টা মার্ডার করেছে। অনুব্রত মণ্ডল হাটে মাছ কাটত। এখনও হাজার কোটি টাকার মালিক কিভাবে হল? ওর মেয়ে একসঙ্গে দুটো চাকরি কি করে পায়? ছাড়া পাওয়ার পরে কেষ্টর কলার ধরে আমি আমার টাকা আদায় করব।’

নিত্যানন্দবাবুর তোলা অভিযোগের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানার জন্য অনুব্রতবাবুকে ফোন করা হলে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি কোনও মন্তব্য করতে চাই না।’ অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে নিত্যানন্দবাবু প্রকাশ্যে এইসব অভিযোগ তোলায় যারপরনাই অস্বস্তিতে শাসকদলের নেতৃত্ব।

পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব এই বিষয়ে মুখে কুলুপ আটলেও জেলার বিজেপি সভাপতি সন্দীপ নন্দি এই ঘটনা নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেছেন। সন্দীপবাবু বলেন, ‘দিদির সাধের কেষ্ট এখন উলঙ্গ রাজা। যতদিন যাচ্ছে ওর দলের লোকজনই ওর মুখোশ খুলে দিচ্ছে। দিন যত গড়াবে অনুব্রতর আসল রূপ ততই প্রকাশ্যে আসবে। বীরভূমের মানুষ আগামী বিধানসভা ভোটে অনুব্রতকে যোগ্য জবাব দেওয়ার জন্য তৈরি হয়ে রয়েছেন।’