আমি মুখ্য়মন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী নাবালক! বঙ্গভঙ্গ ইস্য়ুতে মশকরা তৃণমূল নেতার

323

মেখলিগঞ্জ: উত্তরবঙ্গকে পৃথক রাজ্য করার দাবিতে ক্রমেই জোরালো হচ্ছে সুর। ইতিমধ্যে সাংসদ জন বার্লার দাবিকে সমর্থন জানিয়ে একাধিক বিধায়ক নিজেদের অভিমত প্রকাশ করেছেন। অন্যদিকে, বঙ্গভঙ্গের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে সরব হয়েছেন শাসকদল থেকে শুরু করে বিভিন্ন মহল। উলটোদিকে, বিজেপি সাংসদের এহেন দাবিকে ব্যাঙ্গ করে শুরু হয়েছে কৌতুক। তৃণমূল নেতৃত্বরা মশকরা করে নিজেদের গ্রাম, শহরকে পৃথক রাজ্য করার দাবি জানিয়েছেন। এমতবস্থায় এবার নিছক কৌতুক করে এক তৃণমূল কংগ্রেস নেতা বিষ্ণু পদ ঘোষ নিজের এলাকাকে পৃথক রাজ্য করার দাবি জানিয়েছেন।

বিজেপি সাংসদ জন বার্লার দাবিকে ব্যাঙ্গ করে ওই তৃণমূল নেতা নিজের ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, রাজ্যের নাম ঘোষ পাড়া, রাজধানী আপনা নিবাস, মুখ্যমন্ত্রী আমি দপ্তরহীন, উপ-মুখ্যমন্ত্রী আমার স্ত্রী (অর্থ সহ সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর), রাজ্যপাল জিকো ধনকর (শুধু রাষ্ট্রপতি শাসনের হুমকি দেন), বয়েসের কারণে রাজদীপবাবুকে শিক্ষা মন্ত্রী করা হল (নাবালক)।

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, বিষ্ণুবাবু মেখলিগঞ্জ শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সহ-সভাপতি পদে রয়েছেন। সেক্ষেত্রে বিষ্ণুবাবুর এহেন কৌতুকপূর্ণ পোস্টকে ঘিরে শুরু হয়েছে মশকরা। ইতিমধ্যে তা ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মাধ্য়মে। এবিষয়ে বিষ্ণুবাবু বলেন, ‘আমরা সার্বভৌমত্ব রক্ষা করেই চলছি। আমরা পশ্চিমবঙ্গবাসী একক বন্ধনে থাকতে চাই। আমরা কোনও ভাগাভাগি চাই না। জন বারলা, সৌমিত্র খাঁ থেকে শুরু করে বিজেপির একাংশের নেতা ও কর্মীরা উত্তরবঙ্গকে আলাদা রাজ্য করার চক্রান্ত করছে। যে বিজেপি নেতারা ভোটের আগে সোনার বাংলা গড়তে চাইছিল তারাই ভোটে হেরে গিয়ে বাংলাকে ভাগ করতে চাইছে। এটা আমাদের কাছে হাস্যকর বিষয়। তাই কৌতুকপূর্ণভাবেই আমাদের তরফে এধরনের পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় করা হচ্ছে।’