কেন্দ্রীয় কৃষি বিল হাতিয়ার, বিরোধীতার জন্য পথে নামছে তৃণমূল

465

ফালাকাটা: কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি বিলকে ফালাকাটা উপনির্বাচনে ইস্যু করছে তৃণমূল কংগ্রেস। রবিবার ফালাকাটায় কিষাণ ও খেতমজদুর তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা ও ব্লক কমিটির এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে কৃষি বিলের প্রতিবাদে পথে নামার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তৃণমূলের দাবি, এই কৃষি বিল হল ‘কালা কানুন’। তবে বিজেপিও কৃষি বিলের সমর্থনে সোমবার থেকে ফালাকাটায় পথে নামতে চলেছে।

ফালাকাটা বিধানসভা কেন্দ্রের সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটার হলেন কৃষক। তাই এই এলাকার প্রায় ৭০ শতাংশ কৃষক ভোট ব্যাংকের দিকে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির বিশেষ নজর রয়েছে। ফালাকাটায় বিজেপির শক্তি এখন অনেকটাই বেড়েছে। কিন্তু সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি বিলের বিরোধীতায় গোটা দেশেই ময়দানে নেমেছে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। সামনেই ফালাকাটার আসনে উপনির্বাচন। এই নির্বাচনে কৃষি বিলের বিরোধীতা করেই কৃষকদের বেশি কাছে পেতে চাইছে তৃণমূল। এজন্য তড়িঘড়ি এদিন কিষাণ ও খেতমজদুর তৃণমূলের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় ফালাকাটায়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের জেলা সভাপতি প্রসেনজিৎ রায়, ব্লক সভাপতি সুনীল রায়, এসসি এসটি সেলের ব্লক সভাপতি নরেন রায়, আইএনটিটিইউসির ব্লক নেতা অশোক সাহা সহ ১৩টি অঞ্চলের নেতা ও কর্মীরা। বৈঠকে স্থির হয়েছে, কৃষি বিলের বিরোধীতা করে ফালাকাটার বাবুরহাট, কুঞ্জনগর, গোবিনহাট, খগেনহাট, ভুটনিরঘাট সহ একাধিক জায়গায় ব্লক স্তরের প্রতিবাদ কর্মসূচি হবে। এছাড়াও প্রতিটি অঞ্চল স্তরেও একাধিক কর্মসূচি করা হবে।

- Advertisement -

সংগঠনের জেলা সভাপতি প্রসেনজিৎ রায় বলেন, ‘উপনির্বাচনে এই কৃষি বিলকেই আমরা মূল ইস্যু করব। কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের স্বার্থ বিরোধী এই বিল পাস করেছে। গোটা কৃষক সমাজের কাছে এই বিল হল কালা কানুন। তাই এর প্রতিবাদে গোটা ফালাকাটা গর্জে উঠবে।’

তবে বিজেপির কিষাণ মোর্চার জেলা সভাপতি সুজিত সাহা বলেন, ‘স্বাধীনতার পর এবারই প্রথম কেন্দ্রীয় সরকার কৃষক স্বার্থে এই কৃষি বিল পাস করেছে। এখন কোনও মধ্যস্বত্বভোগী থাকবে না। পণ্য বিক্রিতে পুরো মুনাফা হবে কৃষকদের। তৃণমূল কংগ্রেস সহ বিরোধী দলগুলি রাজনৈতিক স্বার্থে বিলের বিরোধী করছে। কৃষকদের ভুল বোঝানো হচ্ছে। তাই এই বিলের স্বপক্ষে সোমবার থেকে আমরাও ফালাকাটায় পথে নামব।’