প্রার্থী নিয়ে গোষ্ঠী কোন্দল সামাল দিতে তৎপর তৃণমূল

169

চাকুলিয়া: চাকুলিয়া বিধানসভা আসনে তৃণমূলের প্রার্থী নিয়ে গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে আসায় সরগরম হয়ে উঠেছে এলাকার রাজনৈতিক মহল। পরিস্থিতি সামাল দিতে সোমবার চাকুলিয়া তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্ব চাকুলিয়া পঞ্চায়েত সমিতির হলঘরে সাংবাদিক সম্মেলনে করেন। উপস্থিত ছিলেন চাকুলিয়া ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অর্ডিনেটর মিনহাজুল আরফিন আজাদ, চাকুলিয়া তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি মহম্মদ সেতাবুদ্দিন ও উত্তর দিনাজপুর জেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন সাংসদ সভাপতি জাহিদ আলাম আর্জু প্রমুখ। এই তিনজনই এবারের নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিট নিয়ে লড়াই করার দাবি তুলেছেন।

রাজনৈতিক ময়দানে নিজের মতো করে দলীয় সংগঠন সাজাতে গিয়ে গোষ্ঠী কোন্দলের গতিবিধি প্রকাশ্যে আসে। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে হাটবাজার এবং গ্রামেও তাঁদের নিয়ে চর্চা শুরু হয়। চাকুলিয়ার বিরোধী দলগুলি ফায়দা তুলতে তারাও আসরে নামে। বর্তমানে চাকুলিয়ার বিধায়ক আলি ইমরান রমজ ওরফে ভিক্টোর ট্র্যাক্টর আন্দোলনের সময় এক অনুষ্ঠানে তৃণমূলের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বক্তব্য রাখেন। তার মধ্যে ছিল তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের কথাও। পাশাপাশি তিনি এও জানিয়েছিলেন, সাতজন এবারের নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটের দাবিদার। বিরোধী দলগুলির প্রচারে তৃণমূলের এই তিন নেতা অস্বস্তিতে পড়েন।

- Advertisement -

মিনহাজুল আরফিন আজাদ এদিন বলেন, ‘এটা বিরোধীদের অপপ্রচার। তৃণমূলের বিরুদ্ধে যারা এই ধরনের প্রচার করছে তাদের আমরা নিন্দা করছি। আমাদের মধ্যে কোনও ভেদাভেদ নেই। একসঙ্গে আমরা কাজ করছি। তৃণমূলের সুপ্রিমো যাঁকে টিকিট দেবেন আমরা তাঁকে মেনে নেব। এবার চাকুলিয়ায় তৃণমূল শক্তিশালী জায়গায় রয়েছে।’ পাশাপাশি বিপুল ভোটে এবার নির্বাচনে তৃণমূলের জয় হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।