মিমের আতঙ্কে ফালাকাটায় সংগঠন ঢেলে সাজাচ্ছে তৃণমূল

342
ফালাকাটায় তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের কর্মীসভা।

ফালাকাটা: ২০২১-এ পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচন। ভোটকে সামনে রেখে এগোচ্ছে সমস্ত রাজনৈতিক দল। সম্প্রতি বিহার বিধানসভা নির্বাচনে ২০টি আসনে প্রার্থী দিয়ে ৫টি আসনে জয়ী হয়েছে আসাদ উদ্দীন ওয়েইসির অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (এমআইএম)। বিহারে ভালো ফলের পর এবার ওয়েইসির দলের নজর পশ্চিমবঙ্গের দিকে। সেভাবেই এগোচ্ছে এমআইএম অর্থাৎ মিম। বিহারে সংখ্যালঘু ভোট মিমে পড়ায় সুবিধা হয়েছে বিজেপির, এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

ফালাকাটা এরাজ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিধানসভা আসন। ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে এই আসনে সংখ্যালঘু ভোট একটি বড়ো ফ্যাক্টর হয়ে উঠতে পারে। এই পরিস্থিততে ফালাকাটায় তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরে মিমের আতঙ্ক কাজ করছে। তাই সংখ্যালঘু ভোট নিজেদের দিকে টানার জন্য সংখ্যালঘু সেলকে ঢেলে সাজাতে শুরু করেছে তৃণমূল। রবিবার ফালাকাটার পারঙ্গেরপার শিশু কল্যাণ উচ্চ বিদ্যালয়ে দলের সংখ্যালঘু সেলের উদ্যোগে একটি কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই কর্মীসভায় সংগঠনের ফালাকাটা ব্লক কমিটি ঘোষণা করা হয়। যদিও মিম নিয়ে ফালাকাটা তথা আলিপুরদুয়ারে কোনও দুশ্চিন্তা নেই বলে তৃণমূলের নেতারা জানিয়েছেন।

- Advertisement -

ফালাকাটা বিধানসভা কেন্দ্রে প্রায় ১৯ শতাংশ সংখ্যালঘু ভোট রয়েছে। এই ব্লকের ফালাকাটা-২, ধনীরামপুর, দেওগাঁও, জটেশ্বর, শালকুমার, পূর্ব কাঁঠালবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় সংখ্যালঘু ভোট রয়েছে। ২০১১ সাল থেকে অবশ্য সংখ্যালঘু ভোটারদের অধিকাংশই তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে রয়েছে। এদিকে, সাংগঠনিকভাবে সক্রিয় হয়ে উঠলেও এই কেন্দ্রে সংখ্যালঘু ভোটের সমর্থন সেভাবে এখনও পায়নি বিজেপি।

সম্প্রতি বিহারের বিধানসভা নির্বাচনে সাফল্যে পেয়েছে মিম। ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে সেই বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগে রয়েছে তৃণমূল। মিম যে এরাজ্যের নির্বাচনেও লড়াই করবে, তা ইতিমধ্যে ঘোষণা করেছে। মিম সংখ্যালঘু ভোটে থাবা বসালে বিজেপির লাভ হলেও ক্ষতি হবে শাসক দলের। এসব ভেবেই ফালাকাটায় তৃণমূলের সংখ্যালঘু সেলকে ঢেলে সাজানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সংখ্যালঘু ভোটারদের সঙ্গে থাকার বার্তা দিতেই এদিন ফালাকাটায় কর্মীসভার আয়োজন করা হয়।

কর্মীসভায় ফালাকাটার বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের প্রায় তিনশো নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি আব্দুল মান্নান, তৃণমূলের ব্লক সভাপতি সুভাষ রায়, তৃণমূল মহিলা সংগঠনের ব্লক সভানেত্রী সুতপা ভদ্র প্রমুখ। সংগঠনের জেলা সভাপতি আব্দুল মান্নান পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি ঘোষণা করেন। ২০ জনের ব্লক কমিটির সভাপতি হয়েছেন আলতাফ হোসেন। সাতজনকে ব্লক সহ সভাপতি, ১১ জনকে ব্লক সাধারণ সম্পাদক এবং আজাদ হোসেনকে কোষাধ্যক্ষ করা হয়েছে।

আব্দুল মান্নান বলেন, ‘অঞ্চল কমিটিগুলি আগে থেকেই রয়েছে। এদিন পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি ঘোষণা করা হয়। বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে এদিনের কর্মীসভায় ভালো সাড়া পাওয়া গিয়েছে।’ মিমের আতঙ্কেই সংগঠনের তৎপরতা কি না, সে প্রসঙ্গে আব্দুল মান্নান বলেন, ‘মিম উগ্রবাদী সংগঠন। বিহারে বিজেপিকে সুবিধা পাইয়ে দিতে ওই সংগঠন কাজ করেছে। ফালাকাটা তথা আলিপুরদুয়ারে মিমের কোনও প্রভাব নেই। আর ভোটের আগে মিম প্রকাশ্যে এলে আমরাও রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করব। সেজন্য তৃণমূল কংগ্রেসের সংখ্যালঘু সেল প্রস্তুত রয়েছে।’