তুফানগঞ্জ, ১২ ডিসেম্বরঃ তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়ে ভাঙচুর ও দলীয় পতাকা, ফেস্টুন ছেঁড়ার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকালে তুফানগঞ্জ-১ ব্লকের নাটাবাড়ি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের শ্যামগঞ্জ বাজারে পথ অবরোধ করল তৃণমূল কর্মীরা। অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি। এদিন নাটাবাড়ি থেকে আলিপুরদুয়ার যাওয়ার রাজ্য সড়ক প্রায় দু’ঘন্টা অবরোধ করে রাখেন তাঁরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ। পুলিশের তরফে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেওয়া হলে অবরোধ তুলে নেন তৃণমূল কর্মীরা।

জানা গিয়েছে, রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হওয়ার পর থেকেই এলাকার বিজেপি কর্মীরা উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে। নাটাবাড়ি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের শ্যামগঞ্জ বাজারে তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়েও ভাঙচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ। এছাড়াও নাটাবাড়ি বাজারে থাকা কার্যালয়েও হামলা করা হয় বলে অভিযোগ করে তৃণমূল। বিভিন্ন এলাকায় তৃণমূলের লাগানো দলীয় পতাকা ও ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলা হয়। এই বিষয়ে তৃণমূল নেতা প্রদীপ সরকার বলেন, ‘ক্যাব পাস হওয়ার পরই বিজেপি কর্মীরা আমাদের কার্যালয়ে হামলা চালায়। ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। বিষয়টি নিয়ে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে।’ বিজেপি নেতা রবীন্দ্রনাথ বর্মন বলেন, ‘এই ঘটনা তৃণমূলের গোষ্ঠিদ্বন্দ্বের ফল। তাদের গোষ্ঠি কোন্দলের দায়ভার চাপানো হচ্ছে আমাদের ঘাড়ে। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। ঘটনার সঙ্গে বিজেপির কোনো সম্পর্ক নেই।’ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।