নাবালিকা পরিচারিকাকে মদ খাইয়ে অর্ধনগ্ন ভিডিও তোলার অভিযোগে কাঠগড়ায় স্বামী সহ তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্যা

361

ধূপগুড়ি: নাবালিকা পরিচারিকাকে জোর করে মদ্যপান করিয়ে অর্ধনগ্ন অবস্থায় ভিডিও তোলার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্যা প্রতিমা সরকার ও তার স্বামী পার্থ সরকারের বিরুদ্ধে। ঘটনার অভিযোগ পেয়ে অভিযুক্ত প্রতিমা সরকারকে গ্রেপ্তার করেছে ধূপগুড়ি থানার পুলিশ। তবে তার স্বামী পলাতক। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ওই নাবালিকা প্রতিমা সরকারের বাড়িতেই দীর্ঘদিন ধরে পরিচারিকার কাজ করত। সে থাকতও ওখানে। ১৫ দিন আগে ওই পঞ্চায়েত সদস্যা ও তার স্বামী জোর করে ওই নাবালিকাকে মদ্যাপান করানোর চেষ্টা করে। এরই সঙ্গে তাকে অর্ধনগ্ন করে তার ভিডিও বানানোর চেষ্টাও চালায় অভিযুক্তরা।

এই বিষয়ে নাবালিকা মা জানতে পেরে স্থানীয় হাট কমিটির কাছে অভিযোগ জানান। তারা সালিশি সভা ডাকলেও সেখানে অভিযুক্তরা উপস্থিত হয়নি। তারপর শুক্রবার রাতে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতার মা। এরপরই শুরু হয় তদন্ত। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৫ দিন আগে পঞ্চায়েত সদস্যা প্রতিমা সরকার ও তার স্বামী পার্থ সরকার দুজনে মিলে মদ্যপান করে। এরপর জোর করে পরিচারিকাকেও মদ্যপান করায়। পরিচারিকা পালানোর চেষ্টা করলে দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপরই তোলা হয় ভিডিও। ৬ দিন আগে সেই ভিডিও ভাইরালও করে দেওয়া হয়। কিন্তু এইসব ঘটনার কথা কাউকে জানালে প্রানে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয় নির্যাতিতাকে। এরপরই নির্যাতিতার মা ভোটপাড়া হাট কমিটি কর্তৃপক্ষকে জানায়। জলপাইগুড়ি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(গ্রামীন) ওয়াংদেন ভূটিয়া বলেন, ‘ঘটনায় মহিলাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার স্বামী পালিয়ে গিয়েছে। তাকে খোঁজা শুরু হয়েছে।‘

- Advertisement -