পিকের ফর্মুলায় তালিকায় দাগ দিয়ে সমীক্ষা ফালাকাটায়

305

সুভাষ বর্মন, ফালাকাটা : উপনির্বাচনের সম্ভাবনা থাকায় ফালাকাটায় বিশেষ নজর দিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। একমাস আগে ফালাকাটায় এসে মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বৈঠক করেন। এখন ফালাকাটার জন্য আলিপুরদুয়ারে মাটি কামড়ে পড়ে আছেন ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল কংগ্রেসের ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোরের (পিকে) টিমের ফর্মুলায় এখন বুথস্তরকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে দল। করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় আপাতত প্রকাশ্য কর্মসূচি বন্ধ থাকলেও বুথে বুথে ভোটার তালিকা ধরে সমীক্ষার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে শাসকদল। এজন্য বুথ সভাপতিরা এলাকার ভোটারদের চিহ্নিত করে নামের পাশে সবুজ, গেরুয়া ও লাল কলম দিয়ে দাগ টেনে দিচ্ছেন। তৃণমূলের দাবি, এই পদ্ধতিতে দলের একটি প্রাথমিক সমীক্ষা চলছে। তবে বিজেপি এসবকে গুরুত্ব দিতে চায়নি।

গত বছরের ৩১ অক্টোবর বিধায়ক অনিল অধিকারীর মৃত্যু হওয়ায় ফালাকাটায় ছয়মাসের মধ্যে উপনির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে নির্বাচন প্রক্রিয়া পিছিয়ে যায়। তবে কয়েকমাস পরে উপনির্বাচনের সম্ভাবনা থাকায় করোনা পরিস্থিতিতেও তৃণমূল কংগ্রেস, বিজেপি ও সিপিএমের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। এই নির্বাচন নিয়ে যথেষ্ট চাপে রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। গত পঞ্চায়েত ও লোকসভা নির্বাচনে ২৬৬টির মধ্যে অধিকাংশ বুথে বিজেপির থেকে ভোট কম পায় রাজ্যের শাসকদল। এজন্য পিছিয়ে থাকা বুথগুলিকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া শুরু হয়েছে। পিকের টিমের প্রতিনিধিরাও বুথস্তরের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। দলীয় সূত্রে খবর, পিকের টিমের নির্দেশে বুথে বুথে ভোটার তালিকা ধরে সমীক্ষার কাজ শুরু করেছেন বুথস্তরের নেতারা।

- Advertisement -

তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, দলের বুথ সভাপতিরা ঘরে বসেই ভোটার তালিকায় চোখ বুলিয়ে এই সমীক্ষার কাজ করছেন। বুথ সভাপতিরা সংশ্লিষ্ট বুথের প্রত্যেক ভোটার বা পরিবারকে চেনেন। কোন পরিবার বা কোন ভোটার বর্তমান পরিস্থিতিতে কোন রাজনৈতিক দলের দিকে ঝুঁকে রয়েছেন তা দলের বুথ সভাপতিরা ভালো করে জানেন। তাঁরা সেই সূত্রে ভোটার তালিকায় ভোটারদের নাম দেখে তৃণমূলের সমর্থকদের নামের পাশে সবুজ কলম দিয়ে দাগ টেনে দিচ্ছেন। আবার বিজেপির দিকে ঝুঁকে থাকাদের নামে পাশে দেওয়া হচ্ছে গেরুয়া দাগ। লাল দাগ টেনে দেওয়া হচ্ছে সিপিএমের সমর্থকদের নামের পাশে। শেষে হিসেব মিলিয়ে দেখা হচ্ছে সংশ্লিষ্ট বুথে কতজন ভোটার তৃণমূল সমর্থক। ফালাকাটার তৃণমূলের এক বুথ সভাপতি বলেন, দলের নির্দেশে এই কাজ চলছে। পুরো ভোটার তালিকায় দাগ টেনে দলের উপরমহলে তা জমা দেওয়া হচ্ছে। এভাবে একটা স্বচ্ছ হিসাব বের করা সম্ভব হচ্ছে। আরেক বুথ সভাপতি বলেন, বুথের কাজ ভালোভাবে করার জন্য এবং বুথের সামগ্রিক পরিস্থিতি কোন স্তরে রয়েছে তা জানার জন্য এখনও মাঝেমধ্যে পিকের টিমের প্রতিনিধিরা ফোন করেন। তৃণমূলের ফালাকাটা ব্লক সভাপতি সন্তোষ বর্মন বলেন, এখন বুথস্তরে ভোটার তালিকা ধরে দলের প্রাথমিক সমীক্ষার কাজ চলছে। তিনি আরও বলেন, দলের পরিস্থিতি নিয়ে পিকের টিমের প্রতিনিধিরা আমার সঙ্গে যোগাযোগ করছেন।

তৃণমূলের এই তৎপরতায় চিন্তিত নয় বিজেপি। দলের জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা বলেন, তৃণমূলের এই সমীক্ষা ব্যর্থ হবে। কারণ, ওদের মিটিং, মিছিলে উপস্থিত থাকলেও নির্বাচনের সময় অনেকেই বিজেপিকে ভোট দেন। আর আমরা দলীয়ভাবে বুথ, মণ্ডল ধরে সমীক্ষার কাজ করছি। তৃণমূলের ভোটার তালিকায় দাগ টানা সমীক্ষা নিয়ে আমাদের কোনও চাপ নেই।