উপনির্বাচন: বিরোধীরা খুশি না হলেও, প্রচার শুরু তৃণমূলের

124

কলকাতা: ভবানীপুর কেন্দ্রে উপনির্বাচনের কথা ঘোষণা করেছে কমিশন। একইসঙ্গে সামশেরগঞ্জ এবং জঙ্গীপুরে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে কমিশনের এহেন ঘোষণায় খুশি নয় রাজ্যের বিরোধী কোনও রাজনৈতিক দলই। যদিও নির্বাচনের দিন ঘোষণার আধ ঘণ্টার সময়ের মধ্যেই ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে জোর নির্বাচনি প্রচার শুরু করল তৃণমূল। শুধু তাই নয়, ভবানীপুর কেন্দ্রের বিভিন্ন জায়গায় ইতিমধ্যে তৃণমূলের তরফে পোস্টার পড়ে গিয়েছে।

উপনির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ প্রসঙ্গে মন্তব্য করতে গিয়ে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী জানান, তাঁরা সবসময়ই চান নির্বাচন যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হোক। যদিও কমিশনের ঘোষণা নিয়ে প্রশ্ন তুলে ধরেছেন তিনি। তাঁর মতে সাতটি বিধানসভার উপনির্বাচন যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হওয়া উচিত। অপরদিকে বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহা বলেন, ‘বর্তমানে করোনা আবহের জেরে রাজ্য তথা দেশ আতঙ্কিত। করোনার আতঙ্কে লোকাল ট্রেন চালু করতে দিচ্ছে না রাজ্য সরকার। বন্ধ রয়েছে স্কুল-কলেজে পঠন-পাঠন। আর এরই মধ্যে নির্বাচন করার জন্য রাজ্য সরকার যেভাবে উদগ্রীব হয়ে উঠেছে তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।’ তবে নির্বাচন কমিশনের দিনক্ষণ ঘোষণা প্রসঙ্গে মন্তব্য করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনেরও উপায় ছিল না। কারণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখন বিধায়ক নন। তাঁকে ছয় মাসের মধ্যেই নির্বাচনে জিতে আসতে হবে। তাই সাংবিধানিক সঙ্কট এড়াতে মুখ্যমন্ত্রী যেভাবে নির্বাচনের দাবিতে আদালতে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন তারই পরিপ্রেক্ষিতে কমিশন ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’

- Advertisement -