‘নেতাই’-এ শুভেন্দু’র শ্রদ্ধাঞ্জলি, গঙ্গা জল দিয়ে শোধন তৃণমূলের

223

ঝাড়গ্রাম: বিধানসভা ভোটকে কেন্দ্র করে চলছে সব দলের মধ্যে শক্তি প্রদর্শনের লড়াই। তারই মধ্যে নন্দীগ্রামে শহিদ দিবস পালনকে কেন্দ্র করে কটাক্ষের মুখে পড়লেন শুভেন্দু অধিকারী। নেতাই-এ শহিদ বেদিতে মাল্যদান করেন নন্দীগ্রামের প্রাক্তন বিধায়ক। পরবর্তীতে তাঁর প্রস্থানের পর শহিদ বেদি গঙ্গা জল দিয়ে ধুয়ে দেয় এলাকার তৃণমূলকর্মীরা।

এলাকার তৃণমূলকর্মীদের অভিযোগ, নেতাইয়ের এই শহিদ স্মরণ মঞ্চ প্রথম থেকেই অরাজনৈতিক ছিল। সেই অরাজনৈতিক মঞ্চকে অরাজনৈতিক থাকতে দেননি শুভেন্দু। জয় শ্রীরাম স্লোগানে, গেরুয়া পতাকায় ভরিয়েছেন এলাকা। সেই কারণেই নেতাইয়ে শহিদ বেদি শোধনের পথ নিল তৃণমূলেরকর্মীরা।

- Advertisement -

শুভেন্দু অধিকারী অবশ্য দিন কয়েক আগেও কটাক্ষের সুরে বলেছিলেন, ‘শহিদ বেদিগুলো আমার বানানো। আমি প্রতি বছর শ্রদ্ধা জানাতে যাই। কোনওবার তো আসত না। শুনে ভালো লাগল এবার আসছে। আমি আমার ছেলেদের বলেছি, বেদি জল দিয়ে পরিষ্কার করে, ধুয়ে রাখতে। সেখানে না হয় ওরা শ্রদ্ধা জানাক। অতিথিদের যাতে অসুবিধা না হয় তা দেখতে বলেছি।’ কিন্তু দেখা গেল তৃণমূলই শোধনের পথ নিল সেই বেদির।

২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি জঙ্গলমহলের গ্রাম নেতাই-এ ঘটে মর্মান্তিক ঘটনা। সিপিএম নেতার বাড়ি থেকে গুলি চালানোর অভিযোগ ওঠে। সেই গুলিতে মৃত্যু ঘটে বেশ কয়েকজন গ্রামবাসীর। তারপর থেকেই প্রতিবছর এইদিনে শহিদ বেদিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয়। প্রতিবছরই সেই মঞ্চে উপস্থিত থাকে নন্দীগ্রামের প্রাক্তন বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। এবার শুভেন্দু শহিদ বেদিতে আসার পরই সেই জায়গা গঙ্গা জল দিয়ে শুদ্ধিকরণ করল তৃণমূল।