মাল শহরে সাংগঠনিক কাজে জোর দিয়েছে তৃণমূল

82

মালবাজার, ১২ জানুয়ারিঃ মাল শহরের ওয়ার্ড গুলিতে দলীয় নেতা-কর্মীদের একত্রিত করে কোমর বেঁধে নামল তৃণমূল কংগ্রেস। মঙ্গলবার রাতে শহরের ক্যালটেক্স মোড়ে বৈঠক করে দলের কিছু নেতৃত্বের নতুনভাবে দায়িত্ব প্রদানের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। বিধানসভা এবং পুরসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে, মাল শহরে সাংগঠনিক তৎপরতা বাড়াচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। সূত্রের খবর, দলের অভ্যন্তরীণ ভুল বোঝাবুঝি মিটিয়ে নেতাকর্মীদের নিয়ে কাজ করার জন্য স্পষ্ট বার্তা দেওয়া হয়েছে। এদিনেড বৈঠকে মাল শহর তৃণমূল কংগ্রেস কমিটির সভাপতি স্বপন সাহা, তৃণমূল কংগ্রেস নেতা পুলিন গোলদার প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

স্বপন বাবু বলেন, আমরা অজয় লোহারকে মাল শহর তৃণমূল কংগ্রেস কমিটির অন্যতম সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দিচ্ছি। রাজীব সরকারকে যুব সংগঠনের শহর কমিটির কার্যকরী সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। অজয় লোহার, রাজীব সরকার এবং বিজয় পাসওয়ান, বিজয় পাসওয়ান ২, ৫, ১১ এবং ১২ নম্বর ওয়ার্ডের দলীয় নির্বাচনে কাজ পরিচালনার দায়িত্ব পালন করবেন। স্বপন বাবু আরও বলেন, আমাদের দলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আদর্শ এবং কাজকর্মই শেষ কথা। দলের কোনও স্তরেই ভুল বোঝাবুঝি অবকাশ রাখা হচ্ছে না। নির্বাচন আসন্ন। সকলকে একসঙ্গে সংঘবদ্ধভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান করা হয়েছে। শহরের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর তথা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা পুলিন গোলদার বলেন, আমরা সমস্ত নেতাকর্মীদেরই গুরুত্ব দিচ্ছি। ধারাবাহিকভাবে সাংগঠনিক কাজকর্ম চলবে। বিরোধী দলের অপপ্রচারের জবাবও দেওয়া হবে।

- Advertisement -

রবিবার জলপাইগুড়ির জেলা পরিষদের সভাকক্ষে তৃণমূল কংগ্রেসের মাল শহর এবং ব্লকের নেতৃত্বদের সাথে বৈঠক করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা দলের জেলার পর্যবেক্ষক ওম প্ৰকাশ মিশ্র। তৃণমূল কংগ্রেসের জেলার দলীয় মুখপাত্র দুলাল দেবনাথ সহ অন্যান্য নেতৃত্বরাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন। ওই সভা থেকেও সংঘবদ্ধভাবে কাজ করার স্পষ্ট নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রের খবর।