আজ সূর্যের বলয়গ্রাস, আংশিক দেখার সুযোগ কলকাতার

303

নয়াদিল্লি, ২০ জুন : আবহাওয়া যদি শেষ মুহূর্তে বাধা না হয়, তাহলে রবিবার সূর্যের বলয়গ্রাস দেখার সাক্ষী থাকবে ভারতবাসী। রবিবার সকালে ভারতের বিভিন্ন জায়গা থেকে বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। ২০২২ সালের ২৫ অক্টোবরের আগে পর্যন্ত ভারত থেকে এমন গ্রহণ দেখার এটাই শেষ সুযোগ। তবে এই বলয়গ্রাস কলকাতায় দেখা যাবে না। সূর্যের বলয়গ্রাসের পথ যাবে উত্তর ভারতের ওপর দিয়ে। কলকাতা সহ ভারতের বাকি অংশে আংশিক গ্রহণ দেখা যাবে বলে সল্টলেকের পজিশনাল অ্যাস্ট্রোনমি সেন্টার-এর তরফে শনিবার জানানো হয়েছে।আজ সূর্যের বলয়গ্রাস, আংশিক দেখার সুযোগ কলকাতার| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

নেহরু প্ল্যানেটোরিয়ামের পরিচালক প্রফেসর অরবিন্দ পরাঞ্জপে জানিয়েছেন, রবিবার গুজরাটের ভুজ শহর থেকে সূর্যগ্রহণের সূচনা হবে ঠিক সকাল ৯টা ৫৮ মিনিটে। প্রায় চার ঘণ্টা পরে দুপুর ২টো ২৯ মিনিটে গ্রহণ শেষ দেখা যাবে অসমের ডিব্রুগড় শহর থেকে। বেলা ১১টা ৫০ মিনিট নাগাদ পশ্চিম সীমান্তের ঘেরসানার বাসিন্দারা আগুনের আংটি বা সূর্যের বলয়গ্রাস প্রথম দেখার সুযোগ পাবেন। এটি প্রায় ৩০ সেকেন্ড স্থায়ী হবে। সবচেয়ে ভালো দেখা যাবে দিল্লি থেকে ১৫৫ কিমি দূরে কুরুক্ষেত্র থেকে। দেরাদুন থেকেও এই বলয়গ্রাস দেখতে পাবেন সেখানকার বাসিন্দার। উত্তরাখণ্ডের গারওয়াল হিমালয়ের কলঙ্ক শিখর থেকে বলয়গ্রাসের দৃশ্যাবলির পুরোটাই সবচেয়ে ভালো দেখা যাবে। তবে এখানে রিং অফ ফায়ারের স্থায়িত্ব ২৮ সেকেন্ড (বেলা ১২টা ১০ মিনিটে) হবে বলে জানিয়েছেন অধ্যাপক পরাঞ্জপে। তিনি বলেন, মুম্বই শহর থেকে আংশিক বলয়গ্রাস দেখা যাবে। স্থানীয় সময় ১১টা ৩৭ মিনিটে চূড়ান্ত অবস্থা দেখতে পাবেন মুম্বইবাসীরা। তবে গ্রহণ দেখার সবটাই নির্ভর করছে আবহাওয়ার ওপর। খালি চোখে গ্রহণ দেখা খুব বিপজ্জনক ও চোখের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর। সাধারণ সানগ্লাস দিয়ে গ্রহণ দেখতে নিষেধ করেছেন তিনি। গ্রহণ ভালোভাবে দেখার জন্য তিনি উৎসাহী জনসাধারণকে স্থানীয় বিজ্ঞানকর্মীদের সাহায্য নিতে পরামর্শ দেন।

- Advertisement -