গেমস বাতিলের দাবি জাপানী চিকিৎসকদের

টোকিও : দেশের করোনা পরিস্থিতি ক্রমেই হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে। এমন অবস্থায় অলিম্পিক আয়োজনের পরিকল্পনা বাতিল করা হোক। ক্রমাগত এই দাবি উঠছে জাপানে।

সম্প্রতি এই দাবিতে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগাকে চিঠি দিয়েছে সেদেশের চিকিৎসকদের একটি সংগঠন। টোকিও মেডিকেল প্র‌্যাকটিশনার্স অ্যাসোসিয়েশন নামে ওই সংগঠনে প্রায় ৬ হাজার চিকিৎসক রয়েছেন। তাঁরা সকলেই মূলত প্রাথমিকস্তরের স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে জড়িত। তাঁদের বক্তব্য, টোকিওর হাসপাতালগুলি করোনা সংক্রামিতদের ভিড়ে পূর্ণ। বর্তমান পরিকাঠামোয় এর বেশি রোগীকে পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হবে না। সরকার যেন এই বিষয়টি মাথায় রেখে অলিম্পিক বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়। তারা ওই চিঠি আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির কাছেও পাঠিয়েছে।

- Advertisement -

ওই চিঠিতে সংগঠনের তরফে লেখা হয়েছে, আমরা সরকারে কাছে অনুরোধ করছি এই পরিস্থিতিতে অলিম্পিক আয়োজনের পরিকল্পনা বাতিল করা হোক। সরকার আইওসিকে রাজি করানোর দায়িত্ব নিক। এরপর রোগীর চাপ বাড়লে পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হবে না। এমনকি গ্রীষ্মকালে বিভিন্ন মরশুমি রোগে আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়বে। তাদেরও পরিষেবা দিতে হবে। তাই স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর কথা মাখায় রাখা হোক। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে রাজধানী টোকিও সহ জাপানের বিভিন্ন প্রান্তে মে মাসের শেষদিন পর্যন্ত জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

অলিম্পিক আয়োজকরা জৈব সুরক্ষা বলয় সহ একাধিক সাবধনতা অবলম্বনের কথা বললেও ভরসা করছে না সংগঠনটি। তাদের মতে, জৈব সুরক্ষা বলয়ে করোনা সংক্রমণ ছড়াবে না, এর কোনও নিশ্চয়তা নেই। কোনওভাবে বলয়ের মধ্যে সংক্রমণ ছড়ালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা একপ্রকার অসম্ভব হয়ে যাবে। এর আগে দেশের নামী চিকিৎসকরা বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তবে সংগঠনগত ভাবে প্রথমবার প্রতিবাদ করা হল। এর পাশাপাশি জাপানের দুই তারকা টেনিস প্লেয়ার কেই নিশিকোরি এবং নাওমি ওসাকা অলিম্পিক ফের স্থগিতের পক্ষে মত দিয়েছেন।