কলকাতা, ২৫ জুলাই : বুধবার দেশে অসহিষ্ণুতা বৃদ্ধি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে নরেন্দ্র মোদিকে লেখা ৪৯ জন বুদ্ধিজীবীর লেখা চিঠিতে তাঁরও স্বাক্ষর ছিল। আর তারপরেই খুনের হুমকি পেলেন অভিনেতা ও নাট্য পরিচালক কৌশিক সেন। তাঁর মোবাইলে ফোন করে খুনের হুমকি দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এরপরই কলকাতা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন কৌশিক।

দেশের অসহিষ্ণুতার পরিস্থিতি উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। সারা ভারতে বাড়ছে গণপিটুনির ঘটনাও। দেশজুড়ে এমন ঘটনার প্রতিবাদ হওয়া উচিত। দলিত ও মুসলিমদের গণপিটুনির ঘটনায় কড়া শাস্তি দাবি করেছেন ৪৯ জন বুদ্ধিজীবী। চিঠিতে স্বাক্ষর রয়েছে সিনেমা জগতের শ্যাম বেনেগাল, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, আদুর গোপালকৃষ্ণণ, অনুরাগ কাশ্যপ, অপর্ণা সেন, ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহ, চিকিত্সক বিনায়ক সেন, গায়ক অনুপম রায়, রূপম ইসলাম সহ অন্যান্যদের। চিঠি দেওয়ার পর অপর্ণা সেন বলেছিলেন, একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে প্রতিবাদ হতেই পারে। সরকারের সঙ্গে মতপার্থক্য হওয়া মানেই সে দেশদ্রোহী নয়। আর চিঠি দেওয়ার কথা প্রকাশ্যে আসতেই ফুঁসে ওঠেন এই রাজ্যের বিজেপি নেতারা। সায়ন্তন বসু, সাংসদ দিলীপ ঘোষ বুদ্ধিজীবীদের কড়া সমালোচনা করেন। সব ‘সৌজন্য’ ভুলে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘বিশিষ্টরাই সবথেকে বড় দেশদ্রোহী। বিশিষ্টরা হল পরজীবী। সবথেকে বড় চামচা।’ তাঁর অভিযোগ, ‘এরাজ্যে অনেক দলিতের মৃত্যু হয়েছে, তখন কি চোখে ঠুলি পড়ে বসেছিলেন?’ আর দিলীপবাবুর এই মন্তব্যের পরেই কৌশিক সেনকে ফোনে হুমকি দেওয়া হয়।