জঙ্গল বন্ধের জেরে চিন্তায় পর্যটন ব্যবসায়ীরা

73

চালসা: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ফের জঙ্গলে প্রবেশ বন্ধ হয়ে গেল। ফলে অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ-এর মুখে দাড়িয়ে ডুয়ার্সের পর্যটন ব‍্যবসা। রাজ্যজুড়ে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। যার কোপ পড়েছে পর্যটন ব্যবসায়। রাজ্য সরকারি নির্দেশ অনুসারে মঙ্গলবার থেকে বন্ধ হয়ে গেল অভয়ারাণ্য, ইকো ট্যুরিজম, ব্যাঘ্র সংরক্ষণ বনাঞ্চল এবং চিড়িয়াখানা। এর জেরে ডুয়ার্সের গরুমারা ও চাপরামরি অভয়ারণ্যে পর্যটকদের জন‍্য প্রবেশ বন্ধ হল।

ডুয়ার্সের পর্যটন ব‍্যবসা জঙ্গলকেন্দ্রিক। ডুয়ার্সে পর্যটকরা আসেন জঙ্গলে কার সাফারি ও এলিফ্যান্ট সাফারি করতে। করোনা পরিস্থিতিতে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ ছিল এলিফ্যান্ট সাফারি। প্রায় আট মাস পর ফের কার সাফারি চালু হয়। কোভিড বিধি মেনে জঙ্গলে কার সাফারি চালু হলেও করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ফের জঙ্গলে প্রবেশ বন্ধ হওয়ায় মাথায় হাত পড়েছে ডুয়ার্সের পর্যটন ব‍্যবসায়ীদের। ডুয়ার্সের লাটাগুড়ি, মূর্তি, বাতাবাড়ি, ধুপঝোরা, মঙ্গলবাড়ি, মাথাচুলকা, চালসা সহ বিভিন্ন এলাকার পর্যটন ব‍্যবসায়ীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে বনদপ্তরের এই নতুন নির্দেশিকায়। রিসোর্ট মালিকদের সংগঠন গরুমারা ট্যুরিজম ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক দেবকমল মিশ্র জানান, এমনিতেই আগামী ১৫ জুন থেকে বর্ষার সময় তিন মাসের জন‍্য জঙ্গল বন্ধ হয়ে যায়। তার মধ্যে কোভিডের জন্য অনির্দিষ্টকালের জন‍্য জঙ্গল বন্ধ হওয়ায় জঙ্গলকেন্দ্রিক ডুয়ার্সের পর্যটন ব‍্যবসা ক্ষতির মুখে পড়ল। তিনি জানান, সরকারের কাছে আবেদন এই পরিস্থিতিতে পর্যটন ব‍্যবসার সঙ্গে যুক্ত ব‍্যবসায়ীদের জন‍্য কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হোক। সংগঠনের সভাপতি তজমল হক জানান, এমনিতেই করোনার জেরে মূর্তি সহ সংলগ্ন বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে পর্যটক আসা প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তাও কোভিড বিধি মেনে হাতেগোনা দু-একজন পর্যটক আসতেন। কিন্ত জঙ্গল বন্ধের নির্দেশের ফলে তাও বন্ধ হয়ে গেল। তিনি জানান, গত বছরের ক্ষতিই এখনও পূরণ হয়নি তার ওপর ফের জঙ্গল বন্ধ হয়ে গেল। মূর্তি জিপসি ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের পরিচালক মজিদুল আলম জানান, অনিদিষ্টকালের জন্য জঙ্গল বন্ধ হওয়ার ফলে জিপসি চালক, ট্যুরিস্ট গাইডরা কর্মহীন হয়ে পড়লেন। অনেকেই ব্যাংক বা বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা থেকে ঋণ নিয়ে জিপসি কিনেছেন। তাঁর বক্তব্য, বাজারের ক্ষেত্রে আংশিক লকডাউন করা হলে জঙ্গলের ক্ষেত্রে কেন করা হবে না। সরকার যাতে কোনও ব্যবস্থা নেয় সেই আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -