মূর্তির সৌন্দর্যায়নের কাজে খুশি পর্যটক সহ পর্যটন ব্যবসায়ীরা

156

চালসা: আই লাভ দার্জিলিং, আই লাভ কলিম্পং, আই লাভ গরুবাথান, আই লাভ মিরিকের পর এবার পর্যটনকেন্দ্র মূর্তির সোন্দর্যায়নে নতুন পালক। সেখানেও বসল ‘আই লাভ মূর্তি’ লেখা ফলক। ইতিমধ্যে বিষয়টি পর্যটকদের নজর কেড়েছে। রোজ বহু পর্যটক মূর্তিতে আসেন। ফলে মূর্তির সৌন্দর্যায়নের কাজে খুশি পর্যটক সহ পর্যটন ব্যবসায়ী সকলেই।
পশ্চিম ডুয়ার্সের একটি অন্যতম পর্যটনকেন্দ্র হল মূর্তি। সামনে গরুমারা জঙ্গল, পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে মূর্তি নদী, নদীর ওপরে রয়েছে সেতু। মাঝে মধ্যেই মূর্তি নদীর ধারে দেখা পাওয়া যায় হাতি, বাইসন, গন্ডারের। মূর্তির অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের টানে দেশ বিদেশের বহু পর্যটক আসেন এখানে। তাই পর্যটকদের আকর্ষণ করতেই  মূর্তির সৌন্দর্যানের কাজ করা হয়েছে। মাটিয়ালি বাতাবাড়ি ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে করা হয়েছে ওই কাজ।
মূর্তি নদীর ধারে পর্যটকদের বসার জন্য ৭ টি পৃথক জায়গা করা হয়েছে। ছবি তোলার জন্য ‘আই লাভ মূর্তি’ ফলকটি বসানো হয়েছে। রিসোর্ট মালিকদের সংগঠন গরুমারা ট্যুরিজম ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক দেবকমল মিশ্র জানান, গ্রাম পঞ্চায়েতের এই উদ্যোগে তাঁরা খুশি। এর ফলে মূর্তিতে ঘুরতে আসা পর্যটকদের সুবিধে হবে। নদীর পাশে কিছুটা সময় কাটাতে পারবে তাঁরা। মাটিয়ালি বাতাবাড়ি ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শেলী বেগম জানান, গ্রাম পঞ্চায়েতের আইবিআরডি প্রকল্পের তরফে প্রায় ১৯ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ওই সৌন্দর্যয়নের কাজ করা হয়েছে।