বড়দিন থেকেই পর্যটকের ঢল ডুয়ার্সে

265

ময়নাগুড়ি: বড়দিন থেকে পর্যটকের ঢল ডুয়ার্সে। ময়নাগুড়ি ব্লকের গরুমারা জঙ্গল ঘেষা রামশাই মেদলা নজরমিনারে ভিড় চোখে পড়ার মতো। অনেকেই টিকিট না পেয়ে ফিরে যেতে বাধ্য হচ্ছেন।

কোভিড আতঙ্কের জেরে প্রায় সাতমাস বন্ধ ছিল সমস্ত জাতীয় উদ্যান ও অভয়ারণ্য। পুজোর আগে থেকে ফের স্বাভাবিক হয় ডুয়ার্সের বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্র। তবে নতুন বছরের আগমনের প্রাক্কালে বড়দিন থেকে মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে ডুয়ার্সে। বিশেষ করে গরুমারা জঙ্গল ঘেষা ময়নাগুড়ি ব্লকের অন্যতম পর্যটনকেন্দ্র রামশাইতে উপচে পড়ছে ভিড়। টিকিট ফুরিয়ে যাওয়ার দরুণ অনেকেই ওয়াচ টাওয়ার না ঘুরতে পেরে বাধ্য হয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

- Advertisement -

বড়দিন থেকেই পর্যটকের ঢল ডুয়ার্সে| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

 

স্থানীয় বাসিন্দা ছাড়াও বাইরে থেকেও প্রচুর পর্যটক আসেন মেদলা নজর মিনারে। স্থানীয় ইকো গাইড কৈলাস রায়, রনি গোস্বামী, শ্যামল দেবনাথ, বিনোদ খেরিয়া জানান, বড়দিনের কয়েকদিন আগে থেকেই মেদলা পর্যটকে পরিপূর্ণ হয়েছে। দীর্ঘ সাতমাস করোনার জেরে জঙ্গল বন্ধ থাকার দরুণ তাঁদের পেশাতেও টান পড়েছিল। অবশেষে পর্যটকের দেখা মেলায় সকলেই খুশি। সল্টপিটে গন্ডার, বাইসন, হরিণ, হাতি, ময়ূরের দেখা পেয়ে উচ্ছ্বাসিত পর্যটকরাও৷

ময়নাগুড়ির এক পর্যটন ব্যবসায়ী উজ্জ্বল শীল বলেন, নতুন বছরের আগে প্রচুর মানুষ ডুয়ার্সে আসছেন, এটি পর্যটনের জন্য একটি ভালো ইঙ্গিত। আগামী বেশ কয়েকদিন সমস্ত জায়গাতেই বুকিং পরিপূর্ণ আছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। কালীপুর ইকো ভিলেজ, রামশাই রাইনো ক্যাম্পেও অনেকে আসছেন রাত্রিবাসের জন্য৷ গরুমারা ইকো টুরিজম রেঞ্জের রেঞ্জার সুদিপ দে বলেন, ‘বড়দিন থেকে সমস্ত ওয়াচ টাওয়ারগুলি পরিপূর্ণ রয়েছে।’ গরুমারা বন্যপ্রাণী বিভাগের ডিএফও নিশা গোস্বামী বলেন, ‘কোভিড প্রোটোকল মেনেই পর্যটকেরা মেদলায় আসছেন। বন্যপ্রাণীর দেখা পেয়ে খুশি সকলেই।’