ধূপঝোরায় হাতি পুজোয় শামিল পর্যটকরা

169

চালসা: বিশ্বকর্মা পুজো উপলক্ষ্যে প্রতিবছর হাতি পুজো হয় মেটেলি ব্লকের গরুমারার পিলখানা গাছবাড়িতে। প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও নিয়মনিষ্ঠার সঙ্গে ধুমধাম করে পালন করা হয় হাতি পুজো। শুক্রবার গ্রামবাসীদের সঙ্গে পর্যটকরাও পুজোতে অংশ নেয়। এদিন সকাল থেকে পর্যটকরা উপোস করে থাকে পুজো শেষ না হওয়া পর্যন্ত। এদিন পিলখানার হিলারি, ভোলানাথ, বর্ষণ, বসন্ত, ফাল্গুনি ও ডায়না এই ছয়টি কুনকি হাতিকে পুজো করা হয়। সকাল সকাল তাদের মূর্তি নদীতে ঘসে মেজে স্নান করানো হয়। এরপর তাদের রঙ-বেরং এর চক দিয়ে সাজানো হয়। গায়ে প্রতি হাতির নাম লিখে দেওয়া হয় চক দিয়ে। শঙ্খ বাজিয়ে উলুধ্বনি দিয়ে তাদের পুজো মণ্ডপে নিয়ে আসা হয়। পুরোহিত নিয়মনীতি মেনে মন্ত্র উচ্চারণ করে পুজো করে। পুজো শেষ হলেই হাতিদের ভালমন্দ খাওয়ানো হয়। পর্যটকরাও কলা, আপেল সহ অন্যান্য ফলমুল হাতিদের নিজের হাতে খাইয়ে দেন।

মাহুত সঞ্জিত রায় বলেন, ‘এদিন দিনভর হাতিদের দিয়ে কোনও কাজ করানো হয় না। তাদের আজ ছুটি। শেষে গ্রামবাসী ও পর্যটকরা বসে একসঙ্গে ভুড়িভোজন করে। সব মিলিয়ে ডুয়ার্সে বেড়াতে এসে বিশ্বকর্মা পুজোর দিন হাতি পুজোতেই মেতে ওঠেন পর্যটকরাও।’

- Advertisement -