রায়গঞ্জের পরিত্যক্ত হিমঘরের সীমানাপ্রাচীর নীল-সাদা রং হতেই কৌতূহল ব্যবসায়ীদের

105

রায়গঞ্জ: দীর্ঘ প্রায় ৩০ বছর ধরে পড়ে থাকা পরিত্যক্ত সরকারি হিমঘরের সীমানাপ্রাচীর নীল-সাদা রং হতেই কৌতূহল বেড়েছে ব্যবসায়ী থেকে সাধারণ মানুষের। রায়গঞ্জের বোগ্রামে পরিত্যক্ত হিমঘরের সীমানাপ্রাচীর লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয় করে কেন রং করা হচ্ছে তা জানতে অনেকেই ভিড় করছেন।

২০ বছর আগে রায়গঞ্জের একটি বেসরকারি সংস্থা পূর্বতন বামফ্রণ্ট সরকারের প্রয়াত এক মন্ত্রীর মাধ্যমে পরিত্যক্ত হিমঘরটি চড়া দামে সরকারের কাছে বিক্রি করে দেন। সেই হিমঘর এখনও চালু হয়নি। অথচ পরিত্যক্ত হিমঘরের পিছনে পড়ে রয়েছে একটি বহুমুখী হিমঘর। দু’জন নিরাপত্তা কর্মী দিবারাত্রি সেখানে পাহারা দেন। পরিত্যক্ত হিমঘরটি ব্যবহারের যোগ্য না থাকলেও তার পাশে আধুনিকমানের বহুমুখী হিমঘরটি কেন চালু হচ্ছে না তা কেউ জানে না। উত্তর দিনাজপুর রেগুলেটেড মার্কেটিং সোসাইটির সেক্রেটারি বিরাজ পাল জানান, বহুমুখী হিমঘরটি চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ডিপার্টমেন্ট থেকে অনুমোদন আসলে কাজ শুরু হবে। এদিকে বহুমুখী হিমঘর চালুর দাবি জানিয়েছেন বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিরা।

- Advertisement -