অনুব্রতর জনসভার আগেই তৃণমূল ও বিজেপির সংঘাত

95

বর্ধমান: দলীয় পতাকা লাগানো নিয়ে তৃণমূল ও বিজেপির হামলা ও পালটা হামলায় জখম হলেন চার তৃণমূল কর্মী। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার সকাল থেকে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামের আনখোনা গ্রামে। বৃহস্পতিবার কেতুগ্রামের পাচুন্দি এলাকায় রয়েছে অনুব্রত মণ্ডলের জনসভা। তার আগে উত্তেজনা নিয়ন্ত্রণে আনতে আশরে নেমেছে পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী। ঘটনা নিয়ে উভয় পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে কেতুগ্রাম থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ দু’জনকে আটক করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

কেতুগ্রামের তৃণমূল নেতা শেখ শাহনওয়াজ জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার পাচুন্দি গ্রামে অনুব্রত মণ্ডলের জনসভা রয়েছে। সেই জনসভা উপলক্ষ্যে কেতুগ্রামের বিভিন্ন প্রান্তে দলের পতাকা লাগানো শুরু হয়েছে। আনখোনা গ্রামের তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা এদিন বেলায় এলাকায় দলের পতাকা বাঁধতে যায়। তখন তাদের লক্ষ্য করে সেখানকার বিজেপি লোকজন একটি বাড়ি থেকে ব্যাপক ইট ছুঁড়ে মারা শুরু করে। ইটের আঘাতে বেশ কয়েকজন তৃণমূল কর্মী জখম হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

- Advertisement -

যদিও তৃণমূল নেতৃত্বের আনা এই অভিযোগ মানতে চান নি বিজেপির পূর্ব বর্ধমান পূর্ব সাংগঠনিক জেলা সভাপতি কৃষ্ণ ঘোষ। পালটা অভিযোগে তিনি দাবি করেন, উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে তৃণমূলের কর্মীরা বেছে বেছে বিজেপি কর্মী ও সমর্থকদের বাড়িতে তৃণমূলের দলীয় পতাকা লাগিয়ে দিচ্ছিল। তার প্রতিবাদ করলে তৃৃণমূলের কর্মীরা বিজেপি কর্মী ও সমর্থকদের বাড়িতে চড়াও হয়ে মারধোর করে। তাতে বিজেপির কয়েকজন আহত হয়। এদিন সকালে ওই এলাকার এক বিজেপি কর্মী যখন চাষের জমির কাজ সেরে বাড়ি ফিরছিল তখন তাঁর উপরেও তৃণমূলের কর্মীরা আক্রমণ চালায় বলে কৃষ্ণ ঘোষ অভিযোগ করেছেন।