খেলা নিয়ে প্রতিযোগিতায় তৃণমূল-বিজেপি, উদ্বিগ্ন খেলোয়াড়রা

237

ফালাকাটা: খেলার মাঠেও রাজনীতি। শুরুটা তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে হলেও এখন ফালাকাটায় খেলার মাঠ কাঁপাচ্ছে বিজেপি। খেলার মাঠে এভাবে রাজনীতি প্রবেশ করায় খেলার চরিত্র হারিয়ে যাচ্ছে। যা নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রাক্তন ও বর্তমান খেলোয়াড়রা।

ফালাকাটার ফুটবল খেলোয়াড় বাবলা সাহা বলেন, ‘এখন খেলাধুলোর ছবিটা অন্যরকম হয়ে যাচ্ছে। আর খেলার মধ্যে রাজনীতির প্রবেশ মেনে নেওয়া যায় না। খেলাটা হল নিরপেক্ষ। এখানে রাজনীতি চললে খেলাধুলো হবে না।’ ফালাকাটা কলেজের ক্রীড়া শিক্ষক শুভ্র সাহা বলেন, ‘এভাবে খেলোয়াড়দের প্রতিভায় রাজনীতির প্রবেশ ঘটছে। তাই রাজনৈতিক দলগুলির জন্য খেলার বৈশিষ্ট্য হারিয়ে যাচ্ছে।’

- Advertisement -

শালকুমার, ময়রাডাঙ্গা, ধনীরামপুর, জটেশ্বর সহ অধিকাংশ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় যুব তৃণমূল পরিচালিত একদিনের বা আটদিনব্যাপী ফুটবল খেলা হয়েছে। খেলা দিবস উপলক্ষ্যে অনেক ক্লাবকে ফুটবল সহ সরঞ্জামও দেওয়া হয়েছে। এভাবেই যুব সমাজের সমর্থন ধরে রাখতে চাইছে শাসকদল। তাই এখন খেলার মাঠে পিছিয়ে থাকতে চাইছে না বিজেপিও। সম্প্রতি ফালাকাটার বাগানবাড়ি ও ৬ মাইলের মাঠে আয়োজিত ফুটবল খেলায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপির বিধায়ক মনোজ টিগ্গা, দীপক বর্মন সহ অন্যান্য নেতারা। যদিও খেলায় রাজনীতির প্রবেশ নিয়ে সেভাবে ভাবছেই না শাসক ও বিরোধী শিবির। বরং একে অপরের বিরুদ্ধে কাদা ছোড়াছুড়িতেই ব্যস্ত।

বিজেপি বিধায়ক দীপক বর্মন বলেন, ‘খেলার উদ্দেশ্য হল যুবকদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশ। আর যুব মোর্চা অনেক আগে থেকেই এরকম ফুটবল খেলার আয়োজন করে আসছে। এখানে রাজনীতির কিছু নেই।’ তৃণমূল ব্লক সভাপতি সুভাষ রায় বলেন, ‘অনেকদিন থেকে আমাদের ফুটবল খেলাগুলি চলছে। বিজেপি এখন সেটাই অনুসরন করছে। তবে এতে ওদের কোনও লাভ হবে না।’