তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে পুড়ল গাড়ি, উত্তপ্ত বরাইবাড়ি

78

পারডুবি: বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণা হতেই তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষে রণক্ষেত্র আকার ধারণ করল মাথাভাঙ্গা-২ ব্লকের পারডুবি গ্রাম পঞ্চায়েতের বরাইবাড়ির মান্তাপারা এলাকা। বিজেপির অভিযোগ, রবিবার বিকেল থেকেই ভোটের ফলাফল ঘোষণা হতেই এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা বিজেপি কর্মীদের উপর অত্যাচার শুরু করে এলাকায় সন্ত্রাসের বাতাবরণ তৈরি করে। সোমবার ওই এলাকায় বিজেপির জেলা কমিটির সদস্য স্বপন বর্মন ও অন্যান্য কর্মীরা দলীয় কর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে যান।

সেসময় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাদের উপর চরাও হয় বলে অভিযোগ বিজেপি নেতা স্বপন বর্মনের। তৃণমূলের কর্মী সমর্থক ও দুষ্কৃতীরা লাঠিসোটা দিয়ে মারধর ও বাটুল ছোড়ে বলে অভিযোগ তোলেন বিজেপি কর্মীরা। কয়েকজন আহত হন বলে দাবি করেন বিজেপির জেলা কমিটির সদস্য স্বপন বর্মন। বেশকিছু তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁর ছোট গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়ায় গাড়িটি ভস্মীভূত হয়। তিনি জানান, পুলিশ প্রশাসনের মদতে তৃণমূল এলাকায় সন্ত্রাসের বাতাবরণ তৈরি করে এলাকাকে উত্তপ্ত করে অশান্তি করছে। এনিয়ে থানায় অভিযোগ করা হবে বলে জানান তিনি। ঘটনাস্থলে ঘোকসাডাঙ্গা থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

- Advertisement -

পাশাপাশি, এদিন সন্ধ্যা নাগাদ ওই ঘটনাস্থল সংলগ্ন এলাকা থেকে একটি বোমাও উদ্ধার হয়। বোমা পাওয়ার খবর মিলতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। ফের ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘোকসাডাঙ্গা থানার পুলিশ বোমা উদ্ধার করে নিয়ে যায়। অন্যদিকে, তৃণমূলের স্থানীয় নেতারা অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন। তৃণমূল কংগ্রেসের পারডুবি অঞ্চলের চেয়ারম্যান মিন্টু বীর জানান, বিজেপির অভিযোগ ভিত্তিহীন। এই ঘটনায় তৃণমূলের কেউ জড়িত নন বলে দাবি করেন তিনি। বিজেপি সরকারে আসতে পারেনি কারণ সাধারণ মানুষ তাদের পাশে নেই। হয়তো এদিন বিজেপি নেতারা শান্তিপ্রিয় বরাইবাড়ি এলাকায় ঢুকে বোমা, অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অশান্তি করার চেষ্টা চালায় তাই সাধারণ মানুষ এর জবাব দিয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এলাকায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। পুড়ে যাওয়া গাড়িটি ও বোমাটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।