একাধিক জেলা সভাপতি পদে রদবদলের সম্ভাবনা তৃণমূলে, নজরে দার্জিলিং!

334
ছবি: সংগৃহীত।

কলকাতা: ভোট পরবর্তীকালে আগামী মাসের ৫ তারিখ সাংগঠনিক বৈঠকে বসতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। বৈঠকে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের। দলীয় সূত্রে খবর, আসন্ন সাংগঠনিক বৈঠকে একাধিক জেলার সভাপতি পদে বদল আনা হবে। সেই তালিকা খুব একটা দীর্ঘ নয় অবশ্য। তবে তালিকার শীর্ষে দার্জিলিং জেলার নাম রয়েছে বলেই খবর।

জেলাগত সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধির লক্ষ্যে এবার পথ হাঁটতে চাইছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই লক্ষ্যে ৫ জুন দলের সাংগঠনিক বৈঠক যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ হতে চলেছে বলেই দাবি শীর্ষ নেতৃত্বদের। যদিও দলীয় নেতৃত্বরা অবশ্য আসন্ন সাংগঠনিক বৈঠক নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ। তবে দলীয় সূত্রে খবর, সংগঠনকে মজবুত করে তোলার পাশাপাশি এক ব্যক্তি এক পদ নীতি কার্যকর করতে চান সুপ্রিমো। সেই কারণেই উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব বর্ধমান, পূর্ব মেদিনীপুর সহ উত্তরের দার্জিলিং, আলিপুরদুয়ার এবং কোচবিহার  জেলার জেলা সভাপতি বদলের সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিশেষ সূত্রে খবর, উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহার জেলায় বিগত বিধানসভা নির্বাচনে ফল মোটামুটি হলেও দার্জিলিং জেলার ফল ভাবিয়ে তুলছে দলকে। ওই জেলায় মাত্র ২৮ শতাংশ ভোট পেয়েছে তৃণমূল। তার পুনরাবৃত্তি রুখতেই জেলা সভাপতি পদের রদবদলের চিন্তা-ভাবনা শুরু হয়েছে বলে খবর।

- Advertisement -

দার্জিলিং সহ একাধিক জেলার সভাপতি পদে রদবদল হলেও নতুন করে কে দায়িত্ব পেতে চলেছেন তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে রাজনৈতিক মহলের অভিমত, নতুন মুখের পাশাপাশি পুরোনো মুখও দায়িত্ব পেতে পারেন। অন্যদিকে, দলীয় সূত্রে খবর ৫ জুনের ওই বৈঠক থেকেই কেন্দ্রের জনবিরোধী নীতির প্রতিবাদে এক বিরাট বিক্ষোভ কর্মসূচি ডাক দেওয়ার সম্ভবনা সম্ভাবনা রয়েছে।