মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের সভাধিপতিকে বহিষ্কার করল তৃণমূল

123
ছবিঃ সংগৃহীত

কলকাতা: কিছুদিন ধরেই দলের সঙ্গে দূরত্ব রেখে চলছিলেন মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের সভাধিপতি তথা জেলা তৃণমূলের সহ সভাপতি মোশারফ হোসেন। কয়েকদিন আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জঙ্গিপুরের কর্মসূচিতেও তিনি গরহাজির ছিলেন। বুধবার তাঁকে দল থেকে বহিষ্কার করল মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল। একইসঙ্গে সভাধিপতির পদ থেকে সরানোর প্রক্রিয়াও দলের তরফে শুরু করা হয়েছে। তবে বিধানসভা ভোট চলে আসায় এখনই তা সম্ভব হবে কিনা, তা নিয়ে দলের নেতাদের মধ্যেই সংশয় রয়েছে।

মোশারফ হোসেন প্রথম থেকেই শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত। মুর্শিদাবাদ জেলার পর্যবেক্ষক থাকাকালীন শুভেন্দুই তাঁকে সভাধিপতি করেন। তৃণমূলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ানোর পর মুর্শিদাবাদে শুভেন্দু যে সভা করেছিলেন, তার উদ্যোক্তা ছিলেন মোশারফ। ওই সভায় তৃণমূলের পতাকা বা দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ব্যবহার করা হয়নি। তখন থেকেই তাঁকে নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছিল।

- Advertisement -

বুধবার মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূলের সভাপতি আবু তাহের সাংবাদিক সম্মেলন করে মোশারফকে দল থেকে বহিষ্কারের কথা ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, ‘মোশারফ হোসেন দলের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখে চলছিলেন। তিনি যে কর্মসূচি নিচ্ছিলেন, সেখানে দলের পতাকা ও দলনেত্রীর ছবি ব্যবহার করেননি। শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে তিনি একটি সভা করেছিলেন, ওই সভায় দলের অনুমোদন ছিল না। সেই কারণে তাঁকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।’ যদিও এদিন নওদায় জেলা পরিষদের একটি কর্মসূচিতে হাজির ছিলেন সভাধিপতি। তাঁকে এই নিয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে তিনি জানিয়ে দেন, এই ধরনের কোনও খবর তাঁর জানা নেই। দলের তরফে চিঠি পেলে তিনি মন্তব্য করবেন।