ক্ষেমপুরে পঞ্চায়েত বোর্ড গড়ল তৃণমূল

180

চাঁচল: কঠোর পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যে চাঁচলের ক্ষেমপুরে পঞ্চায়েত বোর্ড গড়ল তৃণমূল কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার ছিল ক্ষেমপুর পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন। নতুন প্রধান হলেন ওবায়দুর রহমান ও উপপ্রধান হলেন শম্পা মণ্ডল। এদিন পঞ্চায়েত বোর্ড গঠনের পর আবির খেলার পাশাপাশি নাচ-গানে মেতে ওঠেন শাসকদলের নেতা-কর্মীরা।

জানা গিয়েছে, কংগ্রেস ও বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন করে তৃণমূল। এই বিষয়ে বিজেপির রাজ্য যুব মোর্চার সহ সভাপতি অভিষেক সিংহানিয়া জানান, পঞ্চায়েতের অনাস্থার টানাপোড়েনে এলাকার উন্নয়ন থমকে ছিল। তাই বিজেপির ছয়জন সদস্য এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে বোর্ড গঠনে সমর্থন করেছেন। কংগ্রেসের চাঁচল-২ ব্লক সভাপতি সৈয়দ মাঞ্জারুল ইসলাম জানান, কংগ্রেসের একজন সদস্য বোর্ড গঠনে সমর্থন করেছেন বলে তিনি শুনেছেন। কিন্তু তিনি শাসকদলে যোগ দেননি। তবে দলের অনুমোদন ছাড়া কেন এমনটা করলেন সে বিষয়ে তাঁকে তলব করা হবে। যদিও বিজেপি ও কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মেলানোর বিষয়টি এড়িয়ে গিয়েছেন ক্ষেমপুর তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি বিশম্ভর প্রসাদ সাহা। তিনি জানান, দুর্নীতি ও একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়াই ছিল। প্রধান ও উপপ্রধান হয়েছেন শাসকদলেরই। সিপিএমের রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য জামিল ফিরদৌস জানান, তৃণমূল ও বিজেপির কোনও নীতি-আদর্শ নেই।

- Advertisement -

আদিবাসী অধ্যুষিত ক্ষেমপুর পঞ্চায়েতের মোট আসন সংখ্যা ১৭টি। তারমধ্যে গত পঞ্চায়েত ভোটে তৃণমূল-৬, বিজেপি-৬, কংগ্রেস-৪ ও আরএসপি-একটি আসন পায়। একক সংখ্যা গরিষ্ঠতা না থাকায় বোর্ড গঠন নিয়ে সমস্যা দেখা দেয়। শেষে কংগ্রেসের তিনজন ও আরএসপির একজন শাসকদলে যোগ দেওয়ায় তৃণমূলের মোট আসন সংখ্যা দাঁড়ায় ১০টি। এবার শাসকদলের সংখ্যা গরিষ্ঠতা মেলায় স্বাভাবিকভবেই পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন করে তৃণমূল। প্রধান হন শম্পারানি সিনহা ও উপপ্রধান হন লক্ষ্মী ওরাওঁ। কিন্তু বিধানসভা ভোটের পরই প্রধান ও উপ প্রধানের দুর্নীতি, স্বজনপোষণ ও একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে তাঁদের দু’জনকে অপসারণের জন্য শাসকদলের ৩জন, কংগ্রেসের একজন ও বিজেপির ৬জন সদস্য মিলিয়ে মোট ১০জন সদস্য চাঁচল-২-এর বিডিও’র কাছে অনাস্থা প্রস্তাব আনেন। তলবি সভায় প্রধান ও উপপ্রধানের বিপক্ষে ১০জন সদস্য থাকলেও প্রধান ও উপপ্রধান সহ তাঁদের পক্ষের ৭জনই গরহাজির ছিলেন। স্বাভাবিকভাবেই প্রধান ও উপপ্রধান অপসারিত হন।

এদিন বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে যাতে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তারজন্য চাঁচলের এসডিও শুভেন্দু মণ্ডল ও চাঁচল থানার আইসির নেতৃত্বে কড়া পুলিশি নিরাপত্তা ছিল। চাঁচল-২-এর বিডিও দিব্যজোতি দাস জানান, এদিন ক্ষেমপুর পঞ্চায়েত বোর্ডগঠন শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। ক্ষেমপুর পঞ্চায়েতের নব নির্বাচিত প্রধান ওবায়দুর রহমান জানান, তিনি সবাইকে নিয়ে পঞ্চায়েত পরিচালনা করবেন। দীর্ঘ ছয়মাস ধরে থমকে থাকা উন্নয়নমূলক কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার চেষ্টা করবেন।