রাজ্য জুড়ে তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপন

210

উত্তরবঙ্গ ব্যুরো: শুক্রবার তৃণমূল কংগ্রেসের ২৪তম প্রতিষ্ঠা দিবস পালিত হল। একুশের বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে নতুন চ্যালেঞ্জ তৃণমূলের। এদিন সকাল থেকে রাজ্যের জেলায় জেলায় দলীয় কার্যালয় গুলিতে পতাকা উত্তোলন করে প্রতিষ্ঠা দিবস পালন করছে নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা। কোথাও কোথাও মিছিল ও সভার আয়োজন করেছেন রাজ্য ও জেলা স্তরের নেতৃত্বরা। ময়নাগুরি ব্লকের প্রতিটি অঞ্চলে দলীয় পতাকা উত্তোলন করে দিনটিকে উদযাপন করা হয় দলের তরফে।

এদিন সকালে পদমতি-২ অঞ্চলে কার্যালয়ের সামনে দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন দলের অঞ্চল সভাপতি  ফণীভূষণ সেন। সেই সঙ্গে জাতির জনক মহাত্মা গান্ধী, বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও কাজি নজ্রুল ইসলামের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান ও পুষ্পার্ঘ অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান। তৃণমূলের কংগ্রেস নেতা সন্তোষকুমার বসাক দিনটির তাৎপর্য ব্যাখ্যা করে বক্তব্য রাখেন। একই সঙ্গে ইংরেজি নতুন বছরের শুভেচ্ছা বিনিময়ের মধ্যদিয়ে পরস্পর কৌশল বিনিময় করা হয়। অঞ্চল সভাপতি ফণীভূষণ সেন বলেন, ‘অঞ্চলের প্রতিটি গ্রামসভায় মর্যাদার সঙ্গে দিনটি উদযাপন করা হচ্ছে। এই উপলক্ষ্যে দলের তরফে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

- Advertisement -

রাজ্য জুড়ে তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপন| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

পাশাপাশি, এদিন তৃণমূলের মেটেলি ব্লক কমিটির তরফে চালসায় তৃণমূলের কার্যালয়ে ওই অনুষ্ঠান করা হয়। তৃণমূলের ঝাণ্ডা উত্তোলন করেন ব্লক তৃণমূলের সভাপতি আশিস কুন্ডু। উপস্থিত ছিলেন আইএনটিটিইউসির জেলা সভাপতি জোসেফ মুন্ডা, অঞ্চল সভাপতি মায়াঙ্ক শর্মা, ব্লক মহিলা নেত্রী স্নোমিতা কালানদী প্রমুখ। এদিন ঝাণ্ডা উত্তোলনের পর হয় আলোচনা সভা। সেখানে তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবস সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন নেতারা।

পাশাপাশি, কুমারগ্রাম অঞ্চল কমিটির উদ্যোগে দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়। দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন তৃণমূল কংগ্রেসের কুমারগ্রাম অঞ্চল কমিটির সভাপতি মনোজকুমার দাস৷ উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের কুমারগ্রাম অঞ্চল কমিটির সাধারণ সম্পাদক রতন দাস, আলিপুরদুয়ার জেলা কমিটির সম্পাদক জগদানন্দ বাজপেয়ী, যুব সংগঠনের জেলা সম্পাদক কাঞ্চন সরকার, কিষাণ ও খেত মজদুর তৃণমূল কংগ্রেসের কুমারগ্রাম ব্লক সহসভাপতি খোকন সরকার সহ দলের বিভিন্ন শাখা সংগঠন গুলির স্থানীয় নেতা-কর্মীরা। প্রতিষ্ঠা দিবসে দলের প্রবীণ সদস্যদের সম্মান ও সংবর্ধনা দেওয়ার পাশাপাশি ২০২১-এর বিধানসভা ভোটে সংখ্যা গরিষ্ঠ আসনে জয়ী হয়ে ফের ক্ষমতায় আসার সংকল্প করেন উপস্থিত নেতা-কর্মীরা।

তৃণমূল যুব কংগ্রেসের আলিপুরদুয়ার জেলা সম্পাদক কাঞ্চন সরকার বলেন, ‘বামফ্রন্টের দীর্ঘ অপশাসনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে ১৯৯৭ সালে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জাতীয় কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি উপলব্ধি করেছিলেন, জাতীয় কংগ্রেসে থেকে পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতাসীন বামফ্রন্টের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক লড়াই সম্ভব নয় ৷ তাঁর নেতৃত্বে ১৯৯৮ সালের ১ জানুয়ারি তৃণমূল কংগ্রেস আঞ্চলিক দল হিসেবে এবং পরবর্তীতে ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে সর্বভারতীয় দল হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে।

দীর্ঘ লড়াই সংগ্রামের পর রাজ্যবাসীর আর্শীবাদে ২০১১ সালে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস বাম অপশাসনের অবসান ঘটিয়ে ক্ষমতায় আসে। দলের ২৪তম প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপনের পাশাপাশি ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে মূল প্রতিপক্ষ শক্তি বিজেপিকে রুখতে আমরা দিনটিকে সংকল্প দিবস হিসেবেও পালন করছি। বিজেপির জন বিরোধী নীতির কারণে দিশেহারা সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্তমুক্ত করতে নতুন বছরের শুরুতেই দিনভর বুথে বুথে গিয়ে নিবিড় জনসংযোগ গড়ে তোলা হচ্ছে। সেই সঙ্গে নতুন বছরের শুভেচ্ছা বিনিময় এবং মিষ্টিমুখও করানো হচ্ছে।