বালি ঘাট দখল নিয়ে তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে জখম ৭

355

বর্ধমান: পুজোর সময়েও তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষের বিরাম নেই পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে। বালিঘাটের দখল নিয়ে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষের জেরে বৃহস্পতিবার রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গলসির রামনগর এলাকা। চলে বোমাবাজি। ঘটনায় দুই পক্ষের সাতজন আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে গলসি থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ধরপাকড় শুরু হয়েছে।

গলসির রামনগর এলাকার তৃণমূলকর্মী সাগর শেখের অভিযোগ, ‘তাকে একা পেয়ে তার দু’পা ও একটি হাত ভেঙে দিয়েছে দলেরই অন্য গোষ্ঠীর লোকেরা। পাশাপাশি তারা গ্রামেও বোমাবাজি করে। পুলিশ আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে পুরসা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে জখম সাগর শেখকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।’

- Advertisement -

যদিও অপর শাসকদলের অপর গোষ্ঠীর লোকজন দাবি করেন, স্থানীয় শিবতলার কাছে দামোদর নদেতে সাগর একটি অবৈধ বালি ঘাটের দেখভাল করতো। সাগরের মদতে শিল্লা গ্রামের দিনবন্ধু দাস বৈরাগ‍্য (বাপি) দীর্ঘদিন ধরে ওই অবৈধ বালিঘাট চালাচ্ছে। গত ২৮ সেপ্টেম্বর দীনবন্ধু দাসের নামে মামলা দায়ের করে গলসি ১ নম্বর ব্লক ভূমি রাজস্ব আধিকারিক। অবৈধ ভাবে বালি ঘাট চালানোর অপরাধে দীনবন্ধু দাস বৈরাগ‍্যকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। জেল খেটে গত কয়েক দিন আগে দীনবন্ধু জামিনে মুক্ত হয়েছে। মুক্ত হওয়ার পরই সাগরের ও তাঁর দলবল পুণরায় বালি ঘাট নিয়ে সক্রিয় হয়ে ওঠে। এদিন তারাই বালি ঘাটের দখন নিতে গ্রামে দলের লোকজনকে মারধর ও বোমাবাজি ঘটনা ঘটায় বলে বিরোধী গোষ্ঠীর অভিযোগ। ঘটনার পর থেকে গোটা রামনগর থমথমে। পুলিশ টহল জারি রয়েছে।