সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে মাইক বাজিয়ে জলসা করার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

2215

বর্ধমান: করোনা আবহের মধ্যেই বিশ্বকর্মা পুজোর আয়োজন করা হয়েছিল বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সুপার স্পেশালিটি বিভাগ ‘অনাময়’ হাসপাতালে। পুজো উপলক্ষে হাসপাতালের ভিতরে মাইক-বক্স লাগিয়ে ফাংশনের আয়োজন করা হয়। ফাংশনের জন্য রোগীদের বেড দিয়েই হাসপাতালের ভিতরেই তৈরি করা হয়েছিল স্টেজ। সেই মঞ্চেই বড় বড় বক্স বসিয়ে জমজমাট গানের আসর বসানোর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেস পরিলিত হাসপাতালের কর্মচারী ইউনিয়নের বিরুদ্ধে। ঘটনার প্রতিবাদ শুরু হতেই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

‘অনাময়’ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চিকিৎসা হয় মূলত হৃদ রোগীদের। এছাড়াও সড়কপথে মারাত্মক জখম হওয়া ব্যক্তিদেরও চিকিৎসার জন্য অনেক সময়ে পাঠানো হয় অনাময় হাসপাতালে। বৃহস্পতিবারও অনেক হৃদরোগী অনাময় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তা সত্ত্বেও কেন রোগীদের স্বার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে রাতে সাউন্ড বক্স বাজিয়ে হাসপাতাল চত্ত্বরে ফাংশন করা হল তা নিয়েই এখন প্রতিবাদের ঝড় বইতে শুরু করেছে।

- Advertisement -

জেলার বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি শুভম নিয়োগীর দাবি, ঘটনার সঙ্গে হাসপাতালের তৃণমূল পরিচালিত কর্মচারী ইউনিয়নের লোকজন জড়িত রয়েছে। উপযুক্ত তদন্ত করে দোষীদের শাস্তির দেওয়া হোক। শুভম নিয়োগীর হুঁশিয়ারি, ‘হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দোষীদের শাস্তির ব্যবস্থা না করলে বিজেপি বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে।’

তৃণমূলের রাজ্যের মুখপাত্র তথা পূর্ব বর্ধমান জেলাপরিষদের সহ-সভাধীপতি দেবু টুডু বলেন, ‘এই ধরণের ঘটনা সমর্থনযোগ্য নয়। যারা এই কাজ করেছে তারা অন্যায় করেছে। একই সঙ্গে বিজেপি নেতার বক্তব্যের সমালোচনা করে দেবু টুডু বলেন, বিজেপি নেতারা যতকম কথা বলে ততই ভাল। কারণ ওদের নেতারাই মদ খেয়ে মঞ্চে উঠে অশালীন বক্তব্য রাখাতে অভ্যস্ত’। ‘অনাময়’ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার শকুন্তলা সরকার জানিয়েছেন, ‘ঘটনার কথা শুনেছি। হাসপাতালের ভিতরে মাইক বাজানো হয়ে থাকলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’