ট্রেন চালু হলেও একগুচ্ছ অভিযোগ, জলপাইগুড়ি স্টেশনে বিক্ষোভে তৃণমূল

134

জলপাইগুড়ি: হলদিবাড়ি থেকে জলপাইগুড়ি হয়ে এনজেপি পর্যন্ত প্যাসেঞ্জার ট্রেন সকালে চালু সহ একাধিক দাবিতে আন্দোলনে নামল জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেস। বুধবার জলপাইগুড়ি স্টেশনে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল যুব’র নেতা, কর্মী ও সমর্থকরা।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে চালু হয়েছে জলপাইগুড়ি-এনজেপি প্যাসেঞ্জার ট্রেন। কিন্তু ট্রেনটি সকালে চালু হয়নি। অন্য সময়ে চালু হলেও হলদিবাড়ি থেকে এনজেপির ভাড়া ১০ টাকা থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫ টাকা। সাধারণ যাত্রীরা কাউন্টারে লাইন দিয়ে টিকিট কাটার সুবিধা পাচ্ছেন না। রিজার্ভেশনের স্লিপ পূরণ করে ৪ ঘণ্টা আগে টিকিট কাটতে হচ্ছে প্যাসেঞ্জার ট্রেনের জন্য। প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দাম করা হয়েছে ৫০ টাকা। এমনকি, এই রুটে কাশিয়াবাড়ি, মোহিতনগর ও কাদোবাড়ির মতো স্টপেজ তুলে দেওয়া হয়েছে। এই সমস্যা দূর করতেই এদিন জলপাইগুড়ি স্টেশনে বিক্ষোভে শামিল হয়েছে জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেস। দাবি পূরণ না হলে তারা রেল অবরোধের হুমকিও দিয়েছে।

- Advertisement -

জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সৈকত চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘মোদি সরকার এখন রেলকে বিক্রি করে দিতে চাইছে। এখন করোনা পরিস্থিতি অনেক উন্নত হয়েছে। কিন্তু প্যাসেঞ্জার ট্রেনের ভাড়া কমাতে হবে। প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দাম ৫-১০ টাকার বেশি করা চলবে না। স্টপেজ পুনরায় দিতে হবে। আমরা এক থেকে দুই সপ্তাহ সময় দিয়েছি। দাবি পূরণ না হলে রেল অবরোধ করতে বাধ্য হব।’