অদিবাসী উন্নয়নের প্রচারে পদযাত্রায় তৃণমূলের মুখপাত্র

567

বর্ধমান: রাজ্য সরকারের ১১টি প্রকল্পের সুবিধাপ্রাপ্তি থেকে একটিও পরিবার যাতে বঞ্চিত না হয়, তা সুনিশ্চিত করতে মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি। ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে। তার আগেই রাজ্য সরকার ১০ বছরে আদিবাসী সমাজের জন্য কী কী উন্নয়ন কাজ করেছে, তা তুলে ধরতে পদযাত্রা শুরু হল। পূর্ব বর্ধমান জেলাপরিষদের সহকারি সভাধিপতি তথা তৃণমূলের রাজ্য মুখপাত্র দেবু টুডুর নেতৃত্বে জেলার আউশগ্রাম-২ ব্লক থেকে এই পদযাত্রা শুরু হয়েছিল। তাতে বহু আদিবাসী ও জনপ্রতিনিধি অংশ নেন। বিভিন্ন ব্লক ঘুরে পদযাত্রায় অংশগ্রহণকারীরা সোমবার পৌঁছান জামালপুর ব্লকে। এই ব্লকের বিভিন্ন আদিবাসী মহল্লা ঘুরে পদযাত্রা শেষ হয়। বিধানসভা ভোটের আগে এই কর্মসূচি রাজনৈতিকভাবে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

দেবু টুডু এদিন দাবি করেন, রাজ্য সরকার ‘জহার থেকে জাহের’ সর্বত্র পৌঁছে দিয়েছে উন্নয়ন। আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষজন সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পগুলির সুবিধা ও সুফল পাচ্ছেন। আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষজন রাজ্য সরকারের কী কী প্রকল্পের সুফল লাভ করেছেন, তা তুলে ধরতেই ৭ দিন ধরে ১৭৭ কিলোমিটার পথ ও অজস্র গ্রাম ছুঁয়ে পদযাত্রা শেষ হল জামালপুরে। আদিবাসী সমাজের থেকে উঠে আসা বিভিন্ন স্তরের বিশিষ্ট মানুষজন, লোকশিল্পীরা ছাড়াও সাধারণ আদিবাসী পরিবারের বহু মানুষ ধামসা-মাদল সহযোগে পদযাত্রায় অংশ নিয়েছেন।

- Advertisement -

অদিবাসী সমাজের জন্য রাজ্য সরকার চালু করা নানা উন্নয়ন কাজের খতিয়ানও এদিন তুলে ধরেন দেবু টুডু। তিনি বলেন, আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকার উন্নয়ন করা ছাড়াও শিক্ষা, চিকিৎসা প্রভূত ক্ষেত্রে উন্নতি ঘটেছে। এছাড়াও আদিবাসীদের উপাসনা স্থল জাহের থানের উন্নয়ন হয়েছে। সরকার ‘জয় জোহর’ প্রকল্প চালু করেছে।নানা প্রকল্প মাধ্যমে আদিবাসীরা আর্থিক সাহায্য পাচ্ছেন। সরকার এতকিছু উন্নয়ন কাজ করার পরেও মানুষের কিছু প্রশ্ন থাকতে পারে। তাই ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে প্রশাসনের কর্তারা সেই কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকা মানুষজনের সমস্যার কথা শুনে তার চটজলদি সমাধান করবেন।

পদযাত্রার সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই বলে দেবু টুডু দাবি করলেও রাজনৈতিক অভিজ্ঞমহল মনে করছে এই পদযাত্রার মূল লক্ষ্য আসন্ন বিধানসভা ভোট। তাদের দাবি, বিধানসভা ভোটে জয়ের মুখ দেখতে বিজেপি নেতারা এখন দলিত ও পিছিয়ে পড়া শ্রেণির মানুষের মন পেতে চাইছেন। তারা  আদিবাসীদের বাড়িতে গিয়ে খাওয়াদাওয়া করচেন। এই বিষয়টিকে হালকাভাবে নেয়নি তৃণমূল নেতৃত্ব। সেই কারণে তৃণমূল আদিবাসীদের মধ্যে প্রচারে জোর দিয়েছে। শুধু কাজ বা তার প্রচার নয়, মানুষের মনের কথা শোনায় তারা জোর দিচ্ছেন। দেবু টুডু যেহেতু জেলাপরিষদের সহকারি সভাধিপতি ও দলের আদিবাসী সেলের প্রাক্তন প্রধান তাই তাঁকে দিয়েই আদিবাসীদের কাছে টানার চেষ্টা চলছে। সেই লক্ষ্য়েই ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি শুরুর আগে জেলার আদিবাসীদের মন জয় করতে দেবু টুডু অভিনব পন্থায় জনসংযোগ সেরে নিলেন।