অ্যাসিড হামলায় দগ্ধ তৃণমূল সমর্থক, বিজেপির দিকে অভিযোগের তীর

58

বর্ধমান: অ্যাসিড হামলায় জখম হলেন এক তৃণমূল সমর্থক মহিলা। যিনি বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষ থানার বেড়ুগ্রামে। অ্যাসিড হামলায় দগ্ধ তৃণমূল সমর্থককে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মহিলার পরিবারের তরফে ঘটনার বিষয়ে খণ্ডঘোষ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ মামলা রুজু করে তদন্তে নামলেও হামলাকারীর হদিস এখনও মেলেনি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দুই মেয়েকে নিয়ে নিজের বাড়িতেই ছিলেন তৃণমূল সমর্থক ওই মহিলা। রাত ৮টা নাগাদ মুখে কাপড় বাঁধা এক যুবক বাড়িতে ঢুকে আচমকাই তাঁর মুখে অ্যাসিড ছুঁড়ে দিয়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ। অ্যাসিডে মুখ ও দুই হাত দগ্ধ হয়েছে। তাঁর চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে গিয়ে মহিলাকে খণ্ডঘোষ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানকার চিকিৎসক তাঁকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করার পরামর্শ দেন।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, কয়েকমাস আগে বেড়ুগ্রামে বিজেপির একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভায় বক্তব্য রাখতে উঠে সাংসদ তথা বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি সৌমিত্র খাঁ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও মহিলাদের সম্পের্ক কুরুচিকর মন্তব্য করেন। বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে ওই মহিলা খণ্ডঘোষ থানায় সৌমিত্র খাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। দায়ের হওয়া সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সৌমিত্র খাঁ-র বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করে।

খণ্ডঘোষ ব্লক তৃণমূলের সভাপতি অপার্থিব ইসলাম বলেন, ‘পুলিশের কাছে অভিযোগ জানানোর বদলা নিতেই মাম্পিদেবীর উপরে অ্যাসিড হামলা হল কিনা সেই বিষয়টিই এখন ভাবিয়ে তুলেছে। অভিযুক্ত ধরা পড়ার পরেই বিষয়টি পরিস্কার হয়ে যাবে।

খণ্ডঘোষ বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী বিজন মণ্ডল বলেন, ‘ঘটনা বিষয়ে বিশেষ কিছু জানা নেই। তবে, এইসব করে বিজেপিকর্মীদের ফাঁসানোর কোন চক্রান্ত হচ্ছে কি না সেটাই দেখার বিষয়।‘