তৃণমূলের হাতছাড়া হতে পারে তুফানগঞ্জ পুরসভা, বলছে বিধানসভা ভোটের ফল

158

তুফানগঞ্জ: তুফানগঞ্জ পুর এলাকা এখন বিজেপির দখলে। যার প্রমাণ মিলেছে সদ্য শেষ হওয়া ভোট গণনার মধ্য দিয়ে। বিজেপির তুফানগঞ্জ শহরে প্রাপ্ত ভোট ৯৯২০। তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৪১৬৮। এর থেকে স্পষ্ট পুর নির্বাচন হলে তৃণমূলের হাত থেকে বিজেপির হাতে যেতে পারে পুর বোর্ড।

তুফানগঞ্জ শহরে রয়েছে ১২টি ওয়ার্ডে ২২টি বুথ। তুফানগঞ্জ শহরের ১ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৩৪০। আর বিজেপির ৯১০। ২ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৪২৬, আর বিজেপির ৯৮২। ৩ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৩১৯। আর বিজেপির ১০৫১। তুফানগঞ্জ শহরের ৪ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ২৩৭। আর বিজেপির ৭১৭। ৫ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ২৬৬। আর বিজেপির ৮৯৪। ৬ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ২৮৭। আর বিজেপির ৬০৬। ৭ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৭১১। আর বিজেপির ১০৯৫। ৮ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্তি ৩৬৬ ভোট। আর বিজেপির ৮৪৯। ৯ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্তি ৩১৯। আর বিজেপির ৫২৭। ১০ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্তি ২৮৯। আর বিজেপির প্রাপ্তি ৭০৮ টি ভোট। ১১ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্তি ৩০৫ টি ভোট। আর বিজেপির প্রাপ্তি ৬০৯ টি ভোট। ১২ ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রাপ্তি ৩০৩ টি ভোট। সেখানে বিজেপির প্রাপ্তি ৯৭২। তুফানগঞ্জ শহরের ১ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ড তৃণমূলের গড় হিসেবে পরিচিত। সেখানে ও থাবা বসিয়েছে বিজেপি।

- Advertisement -

বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, তুফানগঞ্জ শহরের লোকজন তৃণমূলের কাটমানি আদায় ও দুর্নীতি স্বচক্ষে দেখেছেন। তারা শিক্ষিত। তাই তারা বিজেপিকে ভোট দিয়েছেন। তৃণমূলের জেলা সহ-সভাপতি প্রণব কুমার দে বলেন, রাজ্য সরকার উন্নয়ন শীল ও মানবিক। দলনেত্রী ভালো কাজ করেছেন বলে রাজ্যবাসী তাকে দেখে তৃণমূলকে ভোট দিয়েছেন। আমরা উন্নয়নের মাধ্যমে তুফানগঞ্জবাসীদের মন জয় করব বলে তিনি জানান।