দীর্ঘক্ষণ বিদ্যুৎহীন তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতাল, দুর্ভোগ রোগীদের

446

তুফানগঞ্জ: ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের মধ্যে জেনারেটরে তেল না থাকায় দীর্ঘসময় ধরে অন্ধকারাচ্ছন্ন রইল তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতাল। শনিবার সন্ধ্যায় দীর্ঘসময় ধরে হাসপাতাল চত্বরে আলো ও বাতাসের ব্যবস্থা না থাকায় ক্ষোভ তৈরি হয়েছে রোগী ও তাঁদের আত্মীয়পরিজনদের মধ্যে।

গৌরী পাল নামে তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক মহিলা বলেন, দীর্ঘসময় ধরে তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে বিদ্যুৎ কিংবা আলোর কোনও ব্যবস্থা নেই। চলছে না পাখাও। প্রচন্ড গরমের মধ্যে রোগীরা হাঁপিয়ে উঠেছেন। অথচ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সব দেখে শুনেও নিশ্চুপ হয়ে বসে রয়েছে। গৌরী দেবী আরও বলেন, আমরা জানি লোডশেডিং চলাকালীন আলোর দরকার হলে তাঁর বিকল্প ব্যবস্থা থাকে। এজন্য তেলের টাকাও দেওয়া হয়। আমরা চাই, এখনই চিকিৎসাধীন রোগীদের স্বার্থে আলো ও বাতাসের ব্যবস্থা করা হোক।

- Advertisement -

তুফানগঞ্জ শহরজুড়ে এদিন দফায় দফায় লোডশেডিং হয়। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা থেকে শুরু হওয়া লোডশেডিং রাত পৌনে নয়টা অবধি চলছিল। এরপর রোগীর আত্মীস্বজনদের চাপে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রাত সাড়ে আটটার সময় জেনারেটর চালু করতে বাধ্য হয়। তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালের সুপার মৃণালকান্তি অধিকারী বলেন, জেনারেটরের যান্ত্রিক গোলযোগ দেখা দিয়েছিল। তাই কিছুসময় আলো ও বাতাসের কোনও ব্যবস্থা ছিল না হাসপাতালে। পরে সেটি ঠিক করে চালানো হয়েছে। তবে তেল না থাকার জন্যই যে হাসপাতালের জেনারেটর চালু করা যায়নি, সে সম্পর্কে কোনও মন্তব্য তিনি করতে চাননি।