পূর্ত দপ্তরের জমি উদ্ধার করতে গিয়ে লাঠিচার্জ করল পুলিশ, গ্রেপ্তার ২

242

ফাঁসিদেওয়া, ১ জুলাইঃ পূর্ত দপ্তরের জমি অবৈধভাবে দখল করে রাখার জন্য ৪ মিটার রাস্তা নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। বুধবার ফাঁসিদেওয়া পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে সড়ক নির্মাণ সংস্থা জমি উদ্ধার করতে যায়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। সরকারি জমি আটকে রাখার অভিযোগে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। সেখানে পৌঁছানোর পর অভিযুক্ত ওই আদিবাসী পরিবার থেকে সড়ক নির্মাণকারী সংস্থার কর্মীদের এবং পুলিশের ওপর পাথর এবং তীর ছোঁড়ার হুমকি দিয়ে চড়াও হয়। এরপর পুলিশ ওই পরিবারের ওপর লাঠি চার্জ করে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। পরিবারের পালটা অভিযোগ, ৭ বছর থেকে ওই জমি তাঁদের সড়ক নির্মাণকারী সংস্থা মেপে দিচ্ছে না। বহুবার প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করে কোনও লাভ হয়নি। সঠিক জমি মেপে দেওয়ার দাবিতে তাঁরা জমি আটকে রেখেছিলেন। এদিনের ঘটনায় পুলিশ ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। ধৃতরা হল সেবিস্টিয়ান টোপ্পো এবং রেখা টোপ্পো। তাঁদের ১ ছেলেকে থানায় আটক করে রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে রাতেও এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। ঘটনার তদন্ত করছে।

ওই আদিবাসী পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সড়ক নির্মাণের সময় তাঁদের জমি ভাঙা পড়ে। এরপর ক্ষতিপূরণ দেওয়া এবং জমি মেপে দেওয়া নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়। এরপর ওই পরিবার ন্যাশনাল হাইওয়ে অথরিটি থেকে শুরু করে সকল প্রশাসনিক দপ্তরে যোগাযোগ করে। অভিযোগ, সমস্যার সমাধান হয়নি। এরপর আদিবাসী পরিবার জমির চারপাশে বাঁশের ফেন্সিং তৈরি করে। ফলে, সড়ক নির্মাণ বাঁধা প্রাপ্ত হয়। সম্প্রতি, ওই পরিবার জমির সামনে থাকা ৩১ডি জাতীয় সড়কের জমি আটকে রেখে একই অভিযোগ এনে কাজ করতে বাধা দিয়েছে। এরপর সড়ক নির্মাণকারী সংস্থা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে। এদিন পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে জমি উদ্ধার করতে গেলে যাবতীয় গন্ডগোল শুরু হয়। পুলিশের উপস্থিতিতে সড়ক নির্মাণকারী সংস্থার কর্মীদের বাধা দেয় বলে অভিযোগ। পুলিশ এবং সড়ক নির্মাণকারী সংস্থার কর্মীদের উদ্দেশ্যে তীর ছোঁড়ার হুমকি পাওয়া মাত্রই পুলিশ এবং র‍্যাফ ওই পরিবারের ওপর লাঠি চার্জ করে। সেসময় পরিবারের কয়েকজন সদস্য পালিয়ে যান। কিন্তু, ঘটনায় ওই পরিবারের ২ জন গ্রেপ্তার হয়। যদিও, বাকি অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। বাড়ি থেকে পুলিশ তীর, ধনুক এবং পাথর উদ্ধার করে নিয়ে গিয়েছে।

- Advertisement -

পলাতক পরিবারের সদস্য বিক্রান্ত টোপ্পো জানিয়েছেন, তাঁরা ওই জমি নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে লড়াই করছেন। পুলিশ এদিন তাঁদের ওপর নির্মমভাবে লাঠিচার্জ করেছে। ভারতীয় সংবিধান ভেঙে তাঁদের ওপর জোরজুলুম করেছে। তাঁর দাবি, অবিলম্বে জমি মেপে দিতে হবে। শুধুমাত্র এই কারণেই বাড়ির সামনের জমি আটকে রেখেছিলেন। এছাড়া আর কিছুই নয়। দীর্ঘ কয়েকবছর থেকে প্রশাসন অসহযোগিতা করছে বলে অভিযোগ তুলেছেন। ঘটনায় সঠিক বিচার চাইছেন ওই আদিবাসী পরিবার। সড়ক নির্মাণকারী সংস্থার পক্ষে নারায়ন গুপ্তা জানিয়েছেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করার নির্দেশ রয়েছে। পরিবার জমি দখল করে রাখায় নির্মাণ কাজ আটকে গিয়েছিল। এদিন পুলিশ জাতীয় সড়কের জায়গা খালি করার পর এখন কাজ সঠিকভাবে চলছে। অন্যদিকে, ডিএসপি (গ্রামীণ) অচিন্ত্য গুপ্ত ঘটনায় লাঠিচার্জের বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি জানিয়েছেন, জাতীয় সড়কের জমি অবৈধভাবে আটকে রাখার অভিযোগে ২ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে।