সাইকেলে কেদারনাথের পথে অসমের ২ বন্ধু

265

আলিপুরদুয়ার: ‘সে নো টু ড্রাগস, সে নো টু ভায়োলেন্স’ এই শ্লোগানকে নিয়েই অসমের ধেমাজি থেকে উত্তরাখণ্ডের কেদারনাথ সাইকেলে যাত্রা করছে দুই বন্ধু। ১৭ অগাস্ট যাত্রা শুরু করে ২৭ অগাস্ট রাতে আলিপুরদুয়ারের পৌঁছোয় তাঁরা। ২৮ অগাস্ট শনিবার সকালে আবার আলিপুরদুয়ার থেকে বেরিয়ে যায় জলপাইগুড়ির উদ্দেশ্যে।

২৩ বছর বয়সী রাজদীপ কালিটা এবং ২২ বছর বয়সী লক্ষজ্যোতি দত্ত একই পাড়ার বাসিন্দা। রাজদীপ আইনের ছাত্র, লক্ষজ্যোতি ফটোগ্রাফার। অত দূর যাওয়া এটাই তাদের প্রথম। কেদারনাথ পৌঁছোতে আরও ২৫ দিন লাগবে বলেই জানায় ওরা। প্রতিদিন গড়ে ৭৫-৮০ কিলোমিটার সাইকেল চালাচ্ছে তারা। ধেমাজি থেকে কেদারনাথের দূরত্ব প্রায় ২৬০০ কিমি। ধেমাজি থেকে গৌহাটি হয়ে সংকোষ নদী পেরিয়ে বাংলায় ঢোকে ওরা।শিলিগুড়ি থেকে প্রথমে বিহার এবং বিহার থেকে উত্তরপ্রদেশের বারেলি থেকে সোজা হরিদ্বার যাবে দুজন।হরিদ্বার থেকে শেষে কেদারনাথ। বিভিন্ন জায়গায় রাত কাটাতে হচ্ছে ওদের। কখনো কোনও পরিচিতদের বাড়ি।কখনো বা কোনও হোটেল কিংবা কোনও হোস্টেলে।

- Advertisement -

রাজদীপ বলেন, ‘আমার বাবাও ভ্রমণ প্রেমী। বাইক নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় যায়। আমাদেরও হঠাৎ পরিকল্পনা হল। তারপর বেরিয়ে পড়া। কেউ যাতে নেশা না করে এবং হিংসা ত্যাগ করে, সেই বার্তাই আমার পৌঁছে দিচ্ছি।’ লক্ষজ্যোতি বলেন, ‘বৃষ্টির জন্য বিভিন্ন জায়গায় আটকে যেতে হচ্ছে। তবুও রেইনকোট পরেই চলছি। এখনও কোনও সমস্যায় পড়তে হয় নি। বেশ ভালই লাগছে এই যাত্রাটা। বিভিন্ন জায়গায় মানুষের সঙ্গে পরিচয় হচ্ছে, পুরো অভিজ্ঞতাটাই অন্যরকম।’