মহারাষ্ট্রের পর যোগীর রাজ্যে হিংসার বলি দুই সাধু

407

লখনউ: উত্তরপ্রদেশে ফের হিংসার বলি দুই সাধু। চুরির দায়ে হেনস্তা করার অভিযোগে দুই সাধুকে পিটিয়ে খুন করল এক ব্যক্তি।

উত্তরপ্রদেশ রাজ্য পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্তের নাম মুরারি। চিমটা চুরির দায়ে ওই দুই সাধুর তরফে মুরারিকে বকা-ঝকা করা হয়। এই নিয়ে মুরারি অপমানিত হয়ে এই কাজ করে। অভিযুক্ত জানিয়েছে, গ্রামের মন্দিরে দুদিন আগে একটি চিমটা হারিয়ে যায়। চিমটা চুরির দায়ে ওই দুই সাধু জগদীশ দাস এবং শেরসিং অভিযুক্তকে যথেষ্ট অপমান করে।

- Advertisement -

পুলিশের প্রাথমিক অনুমান ছিল, তরোয়াল দিয়ে তাঁদের হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু পরে অভিযুক্ত নিজে থেকেই জানায়, মন্দিরের ভিতরে রাখা একটি লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয় দুজনকে। তাঁদের মরদেহ দেখতে পেয়েই অভিযুক্তের খোঁজ লাগিয়ে তাকে ধরে ফেলে গ্রামবাসীরা। গ্রেপ্তার করা হয় মুরারিকে। অভিযুক্ত জানিয়েছে, সে ভগবানের ইচ্ছায় এই কাজ করেছে।

পুলিশ সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, গ্রামবাসীরা ভোর পাঁচটা নাগাদ ওই দুই সাধুর মরদেহ দেখতে পায়। এরপর মুরারী নামের ওই অভিযুক্তকে অর্ধনগ্ন অবস্থায় গ্রামে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়।  স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, তাঁরা পালগুনা গ্রামের একটি মন্দিরে থাকতেন। ওই দুই সাধুর একজন ১৫ বছর আগে এবং অন্যজন পাঁচ বছর আগে ওই গ্রামে আসেন। তারপর থেকে গ্রামের মন্দিরের কার্যকলাপ তারাই সামলাতেন। এই ঘটনায় এলাকায় যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়ায়। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ স্থানীয় ডিএম এবং এসএসপিকে এই বিষয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করে রিপোর্ট পেশ করতে নির্দেশ দিয়েছেন।