বন্ধ পাথর খাদানে আটকে পড়ল দুই কিশোরী

238

আসানসোল: বন্ধ হয়ে থাকা পাথর খাদানে আটকে পড়ল দুই কিশোরী। ঘটনাটি ঘটেছে, বুধবার রাতে পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল উত্তর থানার কাল্লা মাঝি পাড়ায়। বৃহস্পতিবার সকালে এই ঘটনার কথা জানাজানি হওয়ায় গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ও দমকল বাহিনী সেখানে আসে। জেলা প্রশাসনের ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টের ডুবুরির দলকে ডেকে পাঠানো হয়। এলাকার বাসিন্দারা পাথর খাদান এলাকায় ভিড় করেন।

জানা গিয়েছে, পাথর খাদানে জল ভর্তি রয়েছে। অনেক গভীর এই খাদানে দুই কিশোরীর খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। পুলিশ জানায়, তলিয়ে যাওয়া দুই যুবতীর নাম নীশা কুমারী (২০) ও সিম্পি কুমারী (১৯)। নীশা ও সিম্পির বাবার নাম বীরেন্দ্র যাদব ও জনার্দন যাদব।

- Advertisement -
বন্ধ পাথর খাদানে আটকে পড়ল দুই কিশোরী| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
জেলা প্রশাসনের ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টের ডুবুরির দল ওই কিশোরীদের খোঁজ চালাচ্ছে।

দুই কিশোরীর পরিবারের তরফে বলা হয়েছে, অন্যদিনের মতো বুধবার রাতে  বাড়িতে অদূরে বন্ধ হয়ে থাকা পাথর খাদানের কাছে নীশা ও সিম্পি কুমারী শৌচকর্ম করতে যায়। তারপর তারা আর ফিরে আসেনি। বাড়ির লোকেদের অনুমান, কোনভাবে তারা ঐ খাদানে পড়ে গিয়ে জলে তলিয়ে যায়। জানা গিয়েছে, দুজনেরই বাড়িতে শৌচালয় নেই। বাড়ে সবাইকে খোলা মাঠে শৌচকর্ম করতে যেতে হয়।

প্রসঙ্গত, এই পশ্চিম বর্ধমান জেলা ওডিএফ ফ্রী জেলার তকমা পেয়েছে। অর্থাৎ এই জেলার কেউ খোলা মাঠে শৌচকর্ম করে না। তবে এই ঘটনার পরে জেলা প্রশাসকের এই দাবি প্রশ্নের মুখে পড়েছে। দুপুর একটা পর্যন্ত দুই কিশোরীর খোঁজ পাওয়া যায়নি। পুলিশ জানায়, খাদানে তল্লাশি চলছে।