শ্রীনগর, ১১ অক্টোবরঃ বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই উপত্যকায় ফের শুরু হয় সন্ত্রাসবাদী-জওয়ান গুলির লড়াই। এই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে দুই সন্ত্রাসবাদীর। এদের মধ্যে একজন পিএইচডি উত্তীর্ণ ছাত্র মানান বসির ওয়ানি(২৭)। আরেকজনের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। এদিন উত্তর কাশ্মীরের কুপওয়ারায় হিন্দওয়ারায় একাউন্টার চলে দীর্ঘ সময়। উদ্ধার হয় প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্র।

আরও একজন লুকিয়ে আছে বলে মনে করা হচ্ছে। সার্চ অপারেশন শুরু করেছে সেনা-পুলিশ যৌথ বাহিনী। বন্ধ করে হেওযা হয়েছে ইন্টারনেট পরিসেবা।

চলতি বছর জানুয়ারিতেই হিজবুল মুজাহিদিনে নাম লেখায় ওয়ানি। আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ছিল সে। উত্তরপ্রদেশ বিশ্ববিদ্যালয়ে জুলজি পড়ার সময় সেখান থেকে সে পালিয়ে গিয়েছিল। তার কিছুদিন পর মান্নানের অ্যাসল্ট রাইফেল সহ-ছবি দেখা যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। ২০১৬ সালে ভোপালে আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রথম পুরস্কার পেয়েছিল মান্নান ওয়ানি।

এই ঘটনায় ওয়ানির মৃত্যুকে জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ‘ক্ষতি’ বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘আজ একজন পিএইচডি স্কলার এনকাউন্টারে মারা গিয়েছে। আমরা রোজ শিক্ষিত যুব সম্প্রদায়কে হারাচ্ছি’।