গ্রাহকদের কান ভাঙানোর অভিযোগ, বিবাদে জড়াল দুই ব্যবসায়ী

89

রায়গঞ্জ: প্রতিবেশী দুই দোকানের বচসার জেরে গুরুতর জখম হল এক বধূ। বুধবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ শহরের পূর্ব কলেজপাড়া এলাকায়। পুলিশ ও মেডিকেল কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, জখম ওই গৃহবধূর নাম লক্ষী রায়(৩৫)। পেশায় মুদির ব্যবসায়ী। রক্তাক্ত অবস্থায় ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের শল্য বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্ত যুবক ছোটন সরকার পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। এদিন এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের শল্য বিভাগের চিকিৎসক সঞ্জয় শেঠ বলেন, ‘জখম বধূর মাথায় ক্ষতের জায়গায় পাঁচটি সেলাই পড়েছে।’ স্ক্যান রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত এই মুহূর্তে কিছু বলা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক রাজা বসাক।

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, ওই গৃহবধূর বাড়ির সামনে একটি মুদির দোকান রয়েছে। তাঁর স্বামী ধীরেন্দ্রনাথ রায় একটি ডিমের আরতে শ্রমিকের কাজে কর্মরত। জখম লক্ষী রায়ের অভিযোগ, পাশাপাশি দুটো দোকান রয়েছে। আমার দোকানে কোনও খরিদ্দার আসলেই সেই সমস্ত খরিদ্দারকে ক্ষেপিয়ে তোলে আমি নাকি দাম বেশি নিচ্ছি। এদিন আমার দোকানে একজন গ্রাহক আসে তার কাছে একটি জলের বোতল ১৫ টাকা দিয়ে বিক্রি করি। পাশের দোকানের অভিযুক্ত ছোটন সরকার ওই গ্রাহককে কান ভাঙানোর চেষ্টা করে। তার প্রতিবাদ করতে গিয়েছিলাম আমি। আচমকাই বড় একটি ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে। ঘটনাস্থলে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে যাই। রায়গঞ্জ থানায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। রায়গঞ্জ থানার পুলিশ আধিকারিক বলেন, ‘অভিযোগের ভিত্তিতে ওই যুবককে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে।’