ক্লপ-পেপদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচ নিয়ে প্রশ্ন

জেনেভা : ইংল্যান্ডের থেকে জার্মানিতে যাতায়াতের ক্ষেত্রে কড়া নীতি নিয়েছে জার্মান সরকার। ফলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রিকোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে জুরগেন ক্লপের লিভারপুল ও পেপ গুয়ার্দিওলার ম্যাঞ্চেস্টার সিটির জার্মানি যাওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। তবে করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এই পর্যায়ে ম্যাচ খেলার চূড়ান্ত সীমা ২ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়েছে উয়েফা। সূচি অনুযায়ী, ৬ এপ্রিল টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনাল শুরু হবে।

 

- Advertisement -

কোভিডের নতুন স্ট্রেন মেলায় ইংল্যান্ড থেকে আসা যাত্রীদের দেশে ঢুকতে দেওয়ার ক্ষেত্রে কড়াকড়ি শুরু করেছে জার্মানি। এমনকি ক্রীড়াবিদদেরও কোনও ছাড় দেওয়া হচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে আরবি লিপজিগের বিরুদ্ধে ১৬ ফেব্রুয়ারি অ্যাওয়ে ম্যাচ রয়েছে লিভারপুলের। ২৪ ফেব্রুয়ারি ম্যাঞ্চেস্টার সিটির অ্যাওয়ে ম্যাচ রয়েছে বরুশিয়া মঞ্চেনগ্ল্যাডবাখের বিরুদ্ধে। তবে তারা জার্মানি যেতে পারবে কি না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

সমস্যা এড়াতে প্রাথমিকভাবে ১৬ ফেব্রুয়ারির ম্যাচকে লিভারপুলের হোম ম্যাচ করার পরিকল্পনা রয়েছে উয়েফার। কারণ স্বদেশীদের আসার ক্ষেত্রে জার্মানির নিয়ম তুলনায় সহজ। কিন্তু জার্মানির এই নীতি বহাল থাকলে ইংল্যান্ডের দুই ক্লাব সেদেশে ম্যাচ খেলতে যেতে সমস্যায় পড়বে। তাই প্রিকোয়ার্টার পর্যায়ে ম্যাচ আয়োজনের সীমা ১৭ মার্চ থেকে বাড়িয়ে ২ এপ্রিল করা হয়েছে। একইসঙ্গে সব ক্লাবকে হোম ম্যাচ আয়োজনের জন্য নিরপেক্ষ কোনও দেশে একটি ভেন্যু ঠিক করার জন্যও বলা হয়েছে।

পাশাপাশি ইউরোপা লিগের নকআউটের প্রথম পর্বে আর্সেনাল-বেনফিকা ম্যাচ নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। এক্ষেত্রেও ইংল্যান্ড থেকে যাতায়াতে কড়া নীতি নিয়ে সমস্যা। এই পর্যায়ে ম্যাচ শেষ করার জন্য উয়েফা ৫ মার্চ পর্যন্ত সময় দিয়েছে। ২২ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বিশ্বকাপের যোগ্যতাঅর্জন পর্বের ম্যাচ হবে বলেও জানিয়েছে তারা।