ভাইপোদের বিবাদ মেটাতে গিয়ে খুন হলেন কাকা

234

রায়গঞ্জ: ভাইপোদের বিবাদ মেটাতে গিয়ে খুন হলেন কাকা। রবিবার সন্ধ্যায় রায়গঞ্জ থানার ভাতুন গ্রাম পঞ্চায়েতের ভাটোল গ্রামের ঘটনা। নিহতের নাম রতন সাহা(৬০)। নিহতের ছেলে দ্বীপনারায়ণ সাহা রায়গঞ্জ থানায় দু’জনের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ করেন। অভিযোগ পাওয়ার পরেই রাজেশ সাহা ও তাঁর স্ত্রী আরতি সাহাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। রায়গঞ্জ থানার পুলিশস তাঁদের বিরুদ্ধে একাধিক জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

স্থানীয়রা জানান, বসতবাড়ির জায়গা নিয়ে রবিবার সন্ধ্যায় দুই কাকাতো ভাইয়ের মধ্যে বচসা শুরু হয়। বচসা থেকে হাতাহাতি শুরু হলে কাকা রতন সাহা বিবাদ মেটাতে হাজির হন সেখানে। সে সময় ভাইপো রাজেশ সাহা কাকাকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়ে বলে অভিযোগ। সেই ইটের আঘাতে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন রতন সাহা। সঙ্গে সঙ্গে পরিবারের লোক তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে ভাটোল প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাঁকে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। কিন্তু, সেখানকার জরুরি বিভাগের চিকিৎসকরা রতন সাহাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। সোমবার রতন সাহার ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের হাতে দেহ তুলে দেওয়া হয়।

- Advertisement -

স্থানীয়রা আরও জানান,মৃত রতন সাহা এলাকায় সমাজসেবী হিসেবে পরিচিত। তিনি দীর্ঘ কয়েক বছর ভাটোল এলাকায় সিপিএমের একাধিক পদ সামলেছেন। দলের কাজ করার পাশাপাশি সমাজসেবার কাজে যুক্ত থাকতেন। ভাতুন গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের প্রধান ইউসুফ আলী বলেন, “রতন বাবু সিপিএম করলেও যে কোন রাজনৈতিক দল তাঁকে সম্মান করত। সকলের আপদে-বিপদে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসতেন। এলাকায় ভালো মানুষ হিসেবে পরিচিত ছিলেন।

জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, “এই ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।ঘটনার তদন্ত চলছে।বাকি অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চলছে।”মৃতের ছেলে দ্বীপনারায়ণ সাহার অভিযোগ, তাঁর কাকার এক ছেলে বাবা রতন সাহাকে ইট দিয়ে থেঁতলে খুন করেছে। দু’জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।